মহাদেবপুরে শিক্ষার্থীকে আহতের ঘটনায় ১০ দিনেও মামলা রেকর্ড করেনি পুলিশ

  

পিএনএস, নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর মহাদেবপুরে এক শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষিকার বিরুদ্ধে ১০ দিনেও মামলা রেকর্ড করেনি থানা পুলিশ।

জানা গেছে, গত ১১ অক্টোবর উপজেলার চাঁন্দাশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা বেবি বেগম লাঠি দিয়ে পিটিয়ে বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্র একলাস আলী কে (১০) গুরুতর আহত করে। আহত স্কুল ছাত্র একলাস আলীকে ওইদিনে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। একলাস আলীর অভিভাবকরা জানান ক্লাসে পড়তে না পাড়ায় শিক্ষিকা বেবি বেগম ক্ষিপ্ত হয়ে বেতের লাঠি দিয়ে পেটাতে শুরু করে। এ সময় ওই ছাত্র ভয়ে দৌড়ে গিয়ে বিদ্যালয় সংলগ্ন তাদের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। পিছনে ধাওয়া করে ওই শিক্ষিকাও এ বাড়ীতে ঢুকে একলাসকে বেধরক লাঠি পেটা করে। এ ঘটনায় একলাসের পিতা দুলাল হোসেন বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়নি।

এ ব্যাপারে মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ সাজ্জাদ হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ছাত্র পেটানোর কথা স্বীকার করে বলেন, এমন ঘটনা ঘটতেই পারে এটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করার মত বিষয় নয়। এদিকে ছাত্র পেটানোর বিষয়টি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ায় টনক নড়েছে স্থানীয় শিক্ষা বিভাগের। অভিযুক্ত শিক্ষিকার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস। ২৩ অক্টোবর মঙ্গলবার সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. মামুনুর রশিদ চাঁন্দাশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে ঘটনাটি তদন্ত করেছেন। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. মাযহারুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করা হচ্ছে।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech