ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ডায়মন্ড লাইফের গ্রাহকদের বৈধ দাবি আদায়ে কমিটি গঠন

  



পিএনএস, ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে মোঃ রাকিবুর রহমান রকিব: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা সরাইল উপজেলায় ডায়মন্ড লাইফ ইনসিওরেন্স কোম্পানির শত শত গ্রাহকের বিমা পলিসি সংক্রান্ত সেবা নিশ্চিতকরন ও গ্রাহকদের বৈধ দাবি আদায়ে প্রয়োজনীয় সুষ্ঠু ব্যবস্থা গ্রহণের লক্ষ্যে স্থানীয় সুশীল সমাজের উদ্যোগে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বুধবার বিকেলে ডায়মন্ড লাইফের সরাইল অফিসে ভূক্তভোগী গ্রাহক ও তাদের স্বজনদের উপস্থিতিতে স্থানীয় কয়েকজন গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ আলোচনা করে এখানকার গ্রাহকসেবা সংক্রান্ত বিশৃঙ্খলা নিরসণের লক্ষ্যে ছয় সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি গঠন করা হয়।

উল্লেখ্য, গ্রাহকসেবায় হয়রানি, চেক প্রতারণা, গ্রাহকের দাবি পরিশোধে হেরফের ও গ্রাহকের বৈধ দাবি পরিশোধে অযৌক্তিক কালক্ষেপন ইত্যাদি অভিযোগ এনে কোম্পানিটির মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (এম.ডি) পিপলু বিশ্বাসের বিরুদ্ধে গত রবিবার ডায়মন্ড লাইফের সরাইল উপজেলার ভূক্তভোগী গ্রাহক ও বীমা কর্মীরা সংবাদ সম্মেলন করেন। এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয় এবং ভূক্তভোগী লোকজন এ নিয়ে স্থানীয় প্রশাসনে অভিযোগ করেন। যা পরবর্তীতে এখানে নানা মহলে আলোচনা সমালোচনা ও সামাজিক অস্থিরতার সৃষ্টি হয়।

এ নবগঠিত কমিটির চেয়ারম্যান হলেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক অতিরিক্ত সচিব ও স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ ফরহাদ রহমান (মাক্কি)। অন্যান্য সদস্যরা হলেন, সরাইল উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব রফিক উদ্দিন ঠাকুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া আইনজীবী সমিতির সিনিয়র আইনজীবী ও আওয়ামীলীগ নেতা সৈয়দ তানভীর হোসেন কাউছার, সরাইল উপজেলা রিপোটার্স ইউনিটির সভাপতি মোঃ নুরুল হুদা, কালীকচ্ছ পাঠশালা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ও ইংরেজী পত্রিকা "দি এশিয়ান এইজ" এর রিপোর্টার মোঃ শাহগীর মৃধা। উপজেলা সদরের উচালিয়াপাড়া মোড় ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক, সরাইল মহিলা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও কানাডা প্রবাসী মোঃ ফয়সাল আহমেদ দুলাল।

এছাড়াও এ কমিটির প্রধান উপদেষ্টা হলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা।

নবগঠিত কমিটির চেয়ারম্যান মোঃ ফরহাদ রহমান জানান, এখানকার সামাজিক শান্তি, শৃঙ্খলা রক্ষায় ও ডায়মন্ড লাইফের ভূক্তভোগী গ্রাহকদের বৈধ পাওনাদি পরিশোধের লক্ষ্যেই এ কমিটির সদস্যরা কোম্পানির নীতিনির্ধারকদের সাথে আলাপ-আলোচনা অব্যাহত রাখবেন। প্রয়োজনে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগেও এ নিয়ে আলোচনা করা হবে। এর কারণ হিসেবে সরকারের সাবেক এ আমলা জানান, বীমা শিল্প উন্নয়নে শেখ হাসিনা সরকার ইতিবাচক ভূমিকা রাখছেন। সাধারণ মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় এ সরকার অনবদ্য ভূমিকায় কাজ করে যাচ্ছে।

এ ছাড়াও ডায়মন্ড লাইফ ইনসিওরেন্স কোম্পানির পরিচালকরা দেশব্যাপী সুপরিচিত। তাদের মধ্যে কয়েকজন সফল ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদ। তাদেরকে গ্রামগঞ্জের মানুষ ভালো ও সফল ব্যক্তি হিসেবে চিনেন ও জানেন। তাদের গড়া কোম্পানিতে মানুষ হয়রানির শিকার হবে, তা মেনে নেওয়া যায় না।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech