ময়মনসিংহে ডাকাতিতে বাধা, ডাকাতের গুলিতে পুলিশসহ আহত ৩

  

পিএনএস, ময়মনসিংহ প্রতিনিধি : ময়মনসিংহ মহানগরীর ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন মেসার্স নূর সন্সের প্রধান কার্যালয়ে ডাকাতির সময় টহল পুলিশ বাধা দেয়ায় ডাকাতের গুলিতে কোতোয়ালি মডেল থানার সহকারী উপ-পুলিশ পরিদর্শক শাখাওয়াত (৪০) গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয় লোকজন ও অন্য পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে মমেক হাসপাতালের ৯ নং ওয়ার্ডে নিয়ে ভর্তি করায় বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

রোববার (১৩ জানুয়ারী ) ভোররাত সাড়ে ৩ টার দিকে নগরীর ত্রিশাল বাসস্টান্ড এলাকায় নুর এন্ড সন্স নামে একটি ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে ডাকাতির চেষ্টাকালে এ ঘটনা ঘটে। এসময় পুলিশ উপস্থিত হলে ডাকাতদের পালিয়ে যাওয়ার সময় ছোড়া গুলিতে পুলিশ সদস্যসহ ৩ জন আহত হলে তাদের ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। এছাড়া ডাকাতদের বেশকিছু সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনার খবর পেয়ে রোববার সকালে ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজি নিবাস চন্দ্র্র মাঝি ও পুলিশ সুপার শাহ মোঃ আবিদ হাসান ঘটনাস্থল পরিদর্শন এবং আহত ওই পুলিশ সদস্যকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে দেখতে যান। ডাকাত দলের সদস্যদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে বলেও জানান তারা।

পুলিশ সূত্রে জানাযায়, রোববার ভোররাত সাড়ে ৩ টার দিকে মহানগরীর ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন মেসার্স নূর সন্সের প্রধান কার্যালয়ের পেছন দিক থেকে ১৫/২০ জনের ডাকাতদলের সদস্যরা ছাদ টপকে ভেতরে প্রবেশ করে প্রথমে সিসি ক্যামোরার লাইন কেটে ক্যামেরা অকার্যকর করে দেয়। পরে সিকিউরিটি গার্ড বাবুল হোসেন ও বেলালকে মারধর করে রশি দিয়ে বেঁধে আটকে রাখে। কার্যালয়ের বেশ কয়েকটি তালা কেটে ভেতরে প্রবেশ করার চেষ্টা চালায়। এসময় আটকে রাখা সিকিউরিটি গার্ডদের চিৎকারে আশপাশের মানুষ ছুটে এলে ডাকাত দল পালিয়ে যাওয়ার সময় সামনে থাকা টহল পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। ডাকাতের গুলিতে ৩ নম্বর পুলিশ ফাঁড়ির টিএএসআই সাখাওয়াত হোসেন ডান হাতে গুলিবিদ্ধ হলে তাকে উদ্ধার করে মমেক হাসপাতালের ৯ নং ওয়ার্ডে নিয়ে ভর্তি করা হয়। একইসাথে আহত হন আরো ২ জন। পরে আহতদের ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

সিকিউরিটি গার্ড বাবুল জানান, রাতে দু’জন দায়িত্ব পালন করছিলাম। কোনও কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমাদের দু’জনকে বেঁধে ফেলে এবং মারধর করে ডাকাত দলের সদস্যরা। একে একে বেশ কয়েকটি তালা কেটে কার্যালয়ের ভেতরে প্রবেশ করার চেষ্টা করে তারা। আমাদের চিৎকারে আশপাশের ও রাস্তার মানুষ ছুটে আসলে ডাকাত দলের সদস্যরা গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায়। ১৫/২০জনের একটি দল ডাকাতি করতে এসেছিল বলেও আরো জানায় বাবুল।

কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনসুরুল আলম জানান, রোববার ভোর রাতের দিকে এই ঘটনাটি ঘটেছে। আহতদের ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। এছাড়া ডাকাতদের বেশকিছু সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলে আরও জানিয়েছেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল




 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech