গাইবান্ধায় নবজাতক ও গৃহবধুর লাশ উদ্ধার

  

পিএনএস, গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধা শহর ও সাদুল্যাপুর উপজেলায় শনিবার সকালে এক নবজাতক ও অপর এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার শহরের পুলবন্দি এলাকায় আলাই নদী ব্রীজের নিচে একটি নবজাতক ছেলে শিশুর মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। গাইবান্ধা থানার অফিসার ইনচার্জ খান মো. শাহরিয়ার শিশুটির লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শিশুর পরিচয় উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

অপরদিকে সাদুল্যাপুর উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের চক নারায়ন গ্রামে একটি পতিত জমিতে শনিবার সকালে মইরন বেগম (৪৮) নামে এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মইরন বেগম সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের দক্ষিন শাহবাজ গ্রামের মৃত আব্দুস ছাত্তার মিয়ার স্ত্রী।
এলাকাবাসিরা জানায়, চকনারায়ন গ্রামের খাসা মিয়ার বাড়ির উত্তর পাশে আনছার আলীর জমিতে ওই গৃহবধুর লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দেয়া হয়। পরে পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। ধারণা করা হচ্ছে শ্বাসরোধে হত্যার পর তাকে ওই স্থানে ফেলে রাখা হয়।

এলাকাবাসি জানান, স্বামী মারা যাওয়ার পর মইরন বেগম ঢাকার গাজীপুরের আব্দুল্যাপুর এলাকায় রাস্তার শ্রমিক হিসেবে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। পরবর্তীতে সাদুল্যাপুরের রসুলপুর ইউনিয়নের বৈষ্ণবদাস গ্রামের লাভলু মিয়ার সাথে তার পরিচয় হলে মইরন বেগম তাকে বিয়ে করেন। লাভলু মিয়া মইরন বেগমকে নিয়ে গাজীপুরে থাকতেন। গত শুক্রবার তারা দু’জনে সাদুল্যাপুরের বৈষ্ণবদাস গ্রামের বাড়িতে আসেন। এরপর এ লাশ উদ্ধারের ঘটনা ঘটে। মইরনের লাশ উদ্ধারের পর থেকে তার দ্বিতীয় স্বামী লাভলু মিয়ার কোন সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না।

সাদুল্যাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আরশেদুল হক জানান, মইরন বেগমের লাশ উদ্ধার করে পোস্টমর্টের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল




 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech