ধুনটে মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

  

পিএনএস ডেস্ক : বগুড়ার ধুনট উপজেলার চিকাশী ইউনিয়নের বড়িয়া গ্রামে মাদ্রাসার দাখিল পরীক্ষার্থীকে অপহরণ করার পর ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে ধুনট থানায় মামলা দায়ের করেন।

বগুড়ার ধুনট উপজেলার মামলা সূত্রে জানা যায়, ধুনটের বড়িয়া গ্রামের জনৈক কৃষকের মেয়ে উপজেলার খাটিয়ামারী মেহেরুননেছা মাদ্রাসার দাখিল পরীক্ষার্থী ১১ এপ্রিল বিকেলে তার বান্ধবীর বাড়িতে যাবার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হয়। বাড়ির পাশে পাকা সড়কের কাছ থেকে বড়িয়া গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে মোহাম্মাদ বাবু মিয়া ওই পরীক্ষার্থীকে ফুসলিয়ে অটোভ্যানে তুলে নেয়। এরপর নারায়ণগঞ্জের বাবুর আত্মীয়ের বাড়িতে যায়। পরের দিন শুক্রবার বিকেলে একটি কাজী অফিসে গিয়ে ওই পরীক্ষার্থীকে জোরপূর্বক বিয়ে করে। এরপর স্বামী স্ত্রী হিসেবে ইচ্ছার বিরুদ্ধে সেখানে কয়েকদিন অবস্থান করে।

১৪ এপ্রিল রবিবার বাবু মিয়া ওই পরীক্ষার্থীকে নিয়ে ধুনটে তার এক নিকট আত্মীয়ের বাড়িতে অবস্থান নেয়। সেখান থেকে কৌশলে ওই পরীক্ষার্থী পালিয়ে এসে ধুনট থানা পুলিশে স্মরনাপন্ন হয়। পরে পুলিশ পরীার্থীর বাবাকে থানায় ডেকে এনে তার কাছ থেকে একটি অভিযোগ নেয়।
তবে এ বিষয়ে এলাকাবাসী বলছে, মাদ্রাসাছাত্রীর বাড়ির সাথে লাগানো বাবু মিয়ার বাড়ি। তাদের মধ্যে পূর্ব পরিচয় থাকায় প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে।

বগুড়ার ধুনট থানার ওসি ইসমাইল হোসেন জানান, দাখিল পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। অভিযুক্তকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech