রামপালে শিক্ষক-শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অনৈতিক কার্যকলাপের অভিযোগে তদন্ত কমিটি গঠন

  

পিএনএস, স্টাফ রিপোর্টার (বাগেরহাট) : বাগেরহাটের রামপালে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহ-শিক্ষিকার বিরুদ্ধে ক্লাস রুমের মধ্যে অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বিভিন্ন দপ্তরে গণস্বাক্ষরকৃত অভিযোগ দাখিল করেছে। ঘটনার তদন্তে তিনটি কমিটি গঠন ও ওই বিদ্যালয়ের অভিযুক্ত শিক্ষক-শিক্ষিকার বিরুদ্ধে জরুরী বদলির জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবর চিঠি দেওয়া হয়েছে।

অভিযোগে জানা গেছে, গত ৮ই মে বুধবার দুপুর আনুমানিক ২ টার সময় উপজেলার হুড়কা ইউনিয়নের উত্তর নলবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ভূপতি মোহন রায় ও জনৈক সহ-শিক্ষিকা বিদ্যালয়ে আসেন। অন্য শিক্ষকরা বিদ্যালয়ে না থাকায় এবং বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় তারা একটি ক্লাস রুমে দরজা বন্ধ করে অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত হয়। এসময় অপর সহ-শিক্ষিকা শিপ্রা বোস তাদের একটি রুমে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পেয়ে আসে পাশের লোকদের বিষয়টি জানান। এরপর অত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অবিভাবকসহ এলাকাবাসী বিক্ষোভ করে ও খুলনা সিটি মেয়র, উপজেলা চেয়ারম্যান, নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর অভিযোগ করেন। অভিযোগকারীরা ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ইউপি সদস্য পূর্ণেন্দু বোসের বিরুদ্ধে ঘঠনা ধামাচাপা দেওয়া চেষ্টার অভিযোগ এনে ম্যানেজিং কমিটি পরিবর্তনের দাবি জানান। অভিযোগকারীরা জানান, কতিপয় সাংবাদিক ওই এলাকায় গিয়ে তথ্য প্রমাণ সংগ্রহ করে অভিযুক্তদের সাথে আতাত করে বিশেষ সুবিধা নিয়ে চম্পট দেন। এতে তারা ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। গত বুধবার রামপাল উপজেলা চেয়ারম্যান ও প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ওই বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন এবং এলাকাবাসীর সাথে কথা বলেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক ভূপতি মোহন রায়ের কাছে জানতে চাইলে তিনি সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। অপর শিক্ষিকা দেশের বাইরে থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। অভিযোগের বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মতিউর রহমানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে আরও একটি কমিটি গঠন করা হবে এবং দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে রামপাল উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ মোয়াজ্জেম হোসেন সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি অত্যান্ত দুঃখজনক। একাধীক তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech