পাকা করার দুদিনের মাথায় পিচ উঠে ফাঁকা

  

পিএনএস ডেস্ক : চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলায় চার কিলোমিটারের একটি কাঁচা রাস্তা পাকা করার মাত্র দুদিনের মাথায় পিচ উঠে ফাঁকা হয়ে গেছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, ঠিকাদার স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা নির্মাণকাজে নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহার করায় এ পরিস্থিতি সৃষ্টি।

গত ১৪ মে, মঙ্গলবার রাস্তাটি ঢালাই দেওয়া হলেও ১৬ মে, বৃহস্পতিবার সকালে গ্রামবাসী দেখেন পিচ ঢালাই কার্পেটের মতো উঠে যাচ্ছে।

তবে বিষয়টি নিয়ে দ্বিমত পোষণ করেছেন কাজের ঠিকাদার স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা সুমন প্রধানীয়া। তিনি দাবি করেন, এলাকার লোকজন হাত দিয়ে পিচ ঢালাই উঠিয়ে ফেলছে।'

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, কচুয়া-কাশিমপুর সড়কের মনপুরা গ্রামের ভেতরে চার কিলোমিটার রাস্তা পাকা করার টেন্ডার হয় ২০১৫ সালে। প্রায় তিন কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। রাস্তাটির কাজ ২০১৫ সালে শুরু হলেও দু’বছর ফেলে রাখা হয়। এরপর আবার কাজ শুরু হলে ২০১৯ সালের মে মাসে তা শেষ হয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, শুরু থেকেই নানা অনিয়ম ও নিম্নমানের উপকরণ দিয়ে কাজ করা হয়। প্রায় দুই বছর রাস্তার কাজ সম্পন্ন না করে ফেলে রেখে দেয়ায় পথচারীরা চরম দুর্ভোগের শিকার হয়।

স্থানীয় বাসিন্দা মোহাম্মদ সাকিব বলেন, “রাস্তা তৈরিতে ব্যবহৃত ইট, বালু, পাথর- এগুলো সবই নিম্নমানের। রাস্তার দু’পাশের রেলিং এর ক্ষেত্রে ভালো মানের ইট ব্যবহার না করে ব্যবহার করা হয় পিকেট, যা মাটি দিয়ে দাঁড় করিয়ে দেওয়া হয়।”

তিনি আরও বলেন, “পিচ ঢালাই দেওয়ার আগে রাস্তা পাকা করায় বিটুমিন না দিয়েই পিচ ঢালাই দেওয়া হয়।”

এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশির বলেন, “অভিযোগ পেয়ে আমি এক কিলোমিটার এলাকা ঘুরে দেখেছি। কাজ নিম্নমানের হওয়ায় পুনরায় এ কাজ করার জন্য উপজেলা প্রকৌশলী সৈয়দ জাকির হোসেনকে নির্দেশ দিয়েছি।”

যোগাযোগ করা হলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নিলীমা আফরোজ বলেন, “উপজেলা প্রকৌশলীকে বলেছি নিম্নমানের কাজ বন্ধ করতে। গতকাল কাজ বন্ধ করার পর শুক্রবার আবার সেই নিম্নমানের কাজ শুরু হওয়ার খবর পেয়ে আবারো নির্দেশ দিয়েছি, ‘রাস্তার কাজ ঠিকমতো করুন, নইলে এ কাজের বিল বন্ধ থাকবে’।”

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন