পঞ্চগড়ে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে ঘরে আগুন

  



পিএনএস ডেস্ক: পঞ্চগড়ে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে ঘরে আগুন দেয়ার অভিযোগে সজিব ইসলাম (১৩) নামে এক কিশোরকে গ্রেফিতার করেছে পুলিশ। ওই ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ওই শিশুর বাবা বাদী শুক্রবার দুপুরে সদর থানায় মামলা করেছেন। গ্রেফতার কিশোরের বাড়ি সদর উপজেলার সাতমেরা ইউনিয়নের জোতসাওদা পুর্বডাঙ্গীতে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে ওই শিশুকে অভিযুক্ত সজিব তার বাড়িতে ডেকে উঠানের শিম বাগানের নিচে ধর্ষণ চেষ্টা করে। এ সময় শিশুটির চিৎকারে মাসহ প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে। এ সময় পালিয়ে যায় অভিযুক্ত কিশোর। এ নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়।

এদিকে ঘটনার পর ওই শিশুকে পরিবারের লোকজন পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগ, এক পর্যায়ে সজিব ও তার বাবা-মা শিশুটির বাড়ির গোলাঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। রাতেই কয়েকজন ওই কিশোরকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

সদর থানা পুলিশের ওসি আবু আক্কাস আহমদ বলেন, শিশুটির বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। শিশুটির স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। অভিযুক্ত কিশোরকে যশোর কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানো হয়েছে।

পিএনএস/ হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech