লামায় ৬ সন্তানের জননীকে গলা কেটে হত্যা

  

পিএনএস ডেস্ক : বান্দরবানের লামায় গোলাপী বেগম (৪৮) নামে ৬ সন্তানের জননীকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার দিবাগত রাতে নিজ বাড়িতে এ খুনের ঘটনা ঘটে। তবে কে বা কারা কি কারণে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তা জানা যায় নি। হত্যাকাণ্ডের শিকার নিহত গোলাপী বেগম চিউনীখাল এলাকার মো. শাহজাহানের প্রথম স্ত্রী।

নিহতের স্বামী মো. শাহজাহান জানান, রবিবার ভোরে মেয়ে আছিয়া বেগম ঘুম থেকে উঠে মায়ের লাশ দেখে চিৎকার করলে বাড়ির অন্যান্য লোকজন ছুটে আসে। রাতে আমার ছোট মেয়ে আছিয়া বেগম (৪) ও বড় ছেলে মো. জসিমের মেয়ে আমেনা আক্তার (৩) নিহত গোলাপীর সাথে ঘুমিয়েছিল। যে দা দিয়ে আমার স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে সে দা’টি আমার ঘরের। দা’টি পড়ে থাকতে দেখা যায়। এই সংসারে আমার ২ ছেলে ও ৪ মেয়ে রয়েছে।

তিনি আরও জানান, আমি গত কয়েকদিন যাবৎ আমার ছোট স্ত্রী জাহানারা বেগমের (৪৫) সাথে ছিলাম। গতরাতেও সেখানে ঘুমিয়েছি। ভোরে বড় ছেলে মো. জসিম আমাকে খবর দিলে আমি দৌঁড়ে আসি। বাড়িতে পাশের ঘরে আমার মা ও অন্যান্য সন্তানরা ঘুমিয়েছিল। লামা থানার অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা খুনের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশের সুরতহাল করা হচ্ছে। ময়না তদন্তের জন্য লাশ বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech