হত্যার পর স্ত্রীকে ড্রেনে ফেলে যায় স্বামী, বলছে র‌্যাব

  

পিএনএস ডেস্ক : গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সালনা এলাকায় একটি ড্রেন থেকে জোসনা বেগম নামের এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে র‌্যাব ও পুলিশ। র‌্যাবের দাবি এই নারীর স্বামী আব্দুল কাদের তাঁকে হত্যা করে লাশ ড্রেনে ফেলে যায়। পরে তাঁর কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী লাশটি উদ্ধার হয়। আব্দুল কাদেরকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

আজ বুধবার বিকেলে র‌্যাব-১ ও পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। জোসনা বেগম (৪৫) ও আব্দুল কাদেরের বাড়ি রাঙামাটির লংগদু থানার সোনাইল এলাকায়। তাঁরা সালনা এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন।

র‌্যাব সূত্রে জানা গেছে, জোসনা বেগম একটি মেসে রান্নার কাজ এবং আব্দুল কাদের রাজমিস্ত্রির কাজ করত। গত রোববার ভোরে স্ত্রী রান্নার কাজে যাওয়ার সময় এগিয়ে দিতে যায় আব্দুল কাদের। পথে তাদের ঝগড়া হয়। এ সময় আব্দুল কাদের জোসনা বেগমকে মুখ চেপে হত্যা করে লাশ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে রেলওয়ে ব্রিজের নিচে একটি ড্রেনে ফেলে দেয়। এদিকে জোসনা বেগমকে না পেয়ে তাঁর ছেলে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে। র‌্যাব-১ সদস্যরা বিষয়টি তদন্ত করতে গিয়ে আব্দুল কাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পোড়াবাড়ী র‌্যাব-১ ক্যাম্পে নেয়। ওই সময় আব্দুল কাদের স্ত্রীকে হত্যার কথা স্বীকার করে। তাঁর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পরে সালনা এলাকায় একটি ড্রেন থেকে জোসনার লাশ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

গাজীপুর র‌্যাব-১ এর কোম্পানী কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন জানান, নিহতের স্বামীকে গ্রেপ্তারের পর সে হত্যার দায় স্বীকার করে। জানায়, স্ত্রী তাঁর অবাধ্য থাকায় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে তাঁকে হত্যা করেছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech