লক্ষ্মীপুরে বুলবুল মোকাবেলায় প্রস্তত ১০০ আশ্রয় কেন্দ্র

  

পিএনএস, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরে ঘূর্নিঝড় মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। চট্টগ্রাম বন্দর এলাকায় ৯নং সর্তক সংকেত ঘোষণা করার পর পরপই জেলা প্রশাসন শুক্রবার রাতে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরী সভার আয়োজন করে। শুক্রবার সকাল থেকে শনিবার দুপুর পর্যন্ত গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি পড়া অব্যাহত রয়েছে।

এতে জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পাল, পুলিশ সুপার ড. এ.এইচ এম কামরুজ্জামানসহ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ দিকে রেড ক্রিসেন্ট এর সহযোগীতায় উপকূলীয় এলাকায় মানুষ জনকে নিরাপদ সরে যাওয়ার জন্য মাইকিং করা হচ্ছে। লক্ষ্মীপুরের উপকূলীয় উপজেলা রামগতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল মোমিন জানান, মেঘনা সংলগ্ন চর আবদুল্লাহ অধিবাসীদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। আশ্রয় কেন্দ্র গুলো প্রস্তত রাখা হয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় উপজেলা প্রশাসন সর্তক অবস্থানে রয়েছে।

এ দিকে দূর্যোগের সর্বশেষ প্রস্ততি বিষয়ে জানতে চাইলে শনিবার দুপুরে জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পাল মোবাইলে জানান, দুর্যোগ মোকাবেলায় ১০০ টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তত রাখা হয়েছে। রামগতি উপজেলার জন্য ৬০ মে: টন চাউল, ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা, কমলনগর উপজেলার জন্য ৬০ মে: টন ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার জন্য ৪০ মে: টন চাউল নগদ ৫০ হাজার টাকা ও রায়পুরের জন্য ৪০ মে: টন চাউল নগদ নগদ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে।

এ ছাড়া রেড ক্রিসেন্ট পর পক্ষ থেকে ১০০০ প্যাকেট শুকনো খাবার প্রদান করা হয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় ৬৬ মেডিকেল টিম প্রস্তত রাখা হয়েছে। দূর্যোগ মোকাবেলায় সকল ধরনের প্রস্ততি সম্পন্ন করা হয়েছে। আমি এখন রামগতি মেঘনার পাড়ে রয়েছি। তবে নদী এখনো শান্ত অবস্থায় রয়েছে।

পিএনএস/মো. শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech