ভোরে সাতক্ষীরা অতিক্রম করবে বুলবুল

  

পিএনএস ডেস্ক: উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রাত পার করছে উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরার মানুষ। ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আতঙ্কে সময় কাটছে তাদের। তবে শনিবার রাত ১টা পর্যন্ত জেলার উপকূলবর্তী এলাকায় কোথাও কোনো দুর্ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

উপকূলীয় শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা, পদ্মপুকুর, বুড়িগোয়ালীনি ইউনিয়নে বর্তমান পর্যন্ত কোনো অঘটন ঘটেনি বলে জানিয়েছেন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা। অন্যদিকে, আশাশুনি উপজেলার উপকূলীয় প্রতাপনগর ও শ্রীউলা ইউনিয়নেও বর্তমান সময় পর্যন্ত কোনো দুঃসংবাদ নেই বলে জানান তারা।

সাতক্ষীরা আবহাওয়া অধিদফতরের কর্মকর্তা জুলফিকার আলী জানান, বুলবুলের অগ্রযাত্রা শুরু হয়েছে উপকূলবর্তী এলাকায়। এর কিছুটা প্রভাব ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। কেন্দ্র থেকে বলা হচ্ছে, ভোররাত ৩ থেকে ৪টার দিকে সাতক্ষীরার উপকূল অতিক্রম করবে বুলবুল। এ সময় জলোচ্ছ্বাস হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

এদিকে, প্রাকৃতিক দূর্যোগ বুলবুলের ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে জেলার ২৭০টি আশ্রয় কেন্দ্র সাইক্লোন শেল্টার ও ১২শ স্কুল, কলেজ, মাদরাসায় রাত্রিযাপন করছে উপকূলীয় এলাকার দেড় লাখ মানুষ।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আশ্রয় নেয়া মানুষরা পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত আশ্রয়কেন্দ্র ত্যাগ করতে পারবে না। জেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় উপজেলা প্রশাসন ও ইউনিয়ন পরিষদ তাদের খাবারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

পিএনএস/ হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech