‘বিয়ে না করলে মৃত্যু ছাড়া কোনো পথ থাকবে না’

  

পিএনএস ডেস্ক: লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে বিয়ের দাবিতে দিনমজুর রফিক উল্যাহর বাড়িতে এক তরুণী অনশন করছেন। তরুণীর নাম শারমিন আক্তার রুহী। তার দাবি, রফিকের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় চলছে।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ওই তরুণী উপজেলার চরলরেন্স গ্রামের ফজল আহমেদের বাড়িতে রফিকের ঘরের সামনে অনশন করছিলেন। সকাল থেকেই তরুণী সেখানে অবস্থান করছেন। এদিকে তরুণী ওই বাড়িতে আসার পরই ঘরে তালা মেরে পালিয়েছে রফিকসহ পরিবারের লোকজন।

জানা গেছে, রফিক ওই বাড়ির ফয়েজ আহমদের ছেলে ও স্থানীয় একটি ইটভাটার দিনমজুর। শারমিন একই গ্রামের শাহাব উদ্দিনের মেয়ে।

অনশনরত শারমিন ও স্থানীয়রা জানান, দুই বছর আগে দিনমজুর রফিকের সঙ্গে তরুণীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিভিন্ন সময়ে তাকে নিয়ে রফিক নানা স্থানে ঘুরতে যায়। বিয়ের প্রলোভনে বিভিন্ন সময় দৈহিক সম্পর্কেও জড়াতে বাধ্য করা হয় বলে অভিযোগ তরুণীর। সর্বশেষ গত রোববার (১৭ নভেম্বর) বিয়ে করার আশ্বাসে রফিক তাকে লক্ষ্মীপুর জজকোর্টের এক আইনজীবীর কাছে নিয়ে যায়। কিন্তু পরিবারের লোকজন কৌশলে রফিককে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যায়। পরে কোথাও খোঁজ না পেয়ে রফিকের বাড়িতে এসে তরুণী অনশন শুরু করে।

তিনি আরও জানান, ‘বিয়ের প্রলোভনে রফিক তার সর্বনাশ করেছে। রফিক তাকে বিয়ে না করলে, মৃত্যু ছাড়া তার কোন পথ থাকবে না।’

এ ব্যাপারে জানতে রফিকের মোবাইলফোনে একাধিকবার কল দিয়েও কোন সাড়া পাওয়া যায়নি।

কমলনগর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মেয়েটি এখনও ওই বাড়িতে আছেন। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পিএনএস/ হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech