পুলিশের সেই পরিদর্শক প্রত্যাহার

  

পিএনএস, ডেস্ক: নারী নির্যাতন, যৌতুক দাবি ও ব্যবসায়ীকে থানায় নিয়ে চেক আদায়ের ঘটনা সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে কুমিল্লার কোতয়ালী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সালাহ উদ্দিনকে প্রত্যাহার করে কুমিল্লা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মু. আনোয়ারুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, পরিদর্শক সালাহ উদ্দিনের বিরুদ্ধে গত চার দিনে নারী নির্যাতন, যৌতুক দাবি এবং এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে দেড় কোটি টাকার চেক লেখিয়ে নেয়ার অভিযোগে কুমিল্লা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আদালতে তিনটি মামলা দায়ের করা হয়। এর মধ্যে দুটি মামলা করেছেন তার দুই স্ত্রী এবং অপরটি করেছেন মহিউদ্দিন নামের এক ব্যবসায়ী। এসব অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে সালাহ উদ্দিনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

এর আগে গত ২৮ নভেম্বর ওই পুলিশ পরিদর্শকের প্রথম স্ত্রী শামসুন নাহার সুইটি দুই সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। মামলার বিচারক আবদুল আউয়াল মামলাটি আমলে নিয়ে কুমিল্লার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে তদন্তের আদেশ দেন।

এছাড়াও এক ব্যবসায়ীকে তার হোটেল থেকে উঠিয়ে থানায় নিয়ে দেড় কোটি টাকার চেক লিখে নেয়ার অভিযোগে সালাহ উদ্দিনের বিরুদ্ধে গত ১ ডিসেম্বর কুমিল্লার আদালতে অপর একটি মামলা দায়ের করেন নগরীর মনোহরপুর এলাকার মৃত আব্দুল হামিদের ছেলে মহিউদ্দিন।

একই দিন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর কোর্টে ২০ লাখ টাকার যৌতুক দাবির অভিযোগে সালাহ উদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা করেন তার দ্বিতীয় স্ত্রী দাবিদার তাহমিনা আক্তার পান্না। ২০১৪ সালে ১৫ লাখ টাকার দেনমোহরে তাদের বিবাহ হয়েছিল বলে দাবি করেন পান্না।

এদিকে পরিদর্শক সালাহ উদ্দিনের প্রত্যাহারের পর বিকেলে তার স্থলে জেলার বিশেষ শাখার পরিদর্শক বিল্লাল হোসেন পরিদর্শক (তদন্ত) হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন।

পিএনএস/ হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech