প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পাখির অভয়াশ্রম থেকে সরানো হল ড্রেজার

  



পিএনএস ডেস্ক: অবশেষে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার মধুবন গ্রাম সংলগ্ন আত্রাই নদীর পাখির অভয়াশ্রম থেকে সরানো হয়েছে বালু উত্তোলন ড্রেজার মেশিন।

মঙ্গলবার বিকালে অভয়াশ্রম থেকে প্রায় ২০০ গজ পূর্বদিকে ড্রেজার মেশিনটি সরিয়ে রাখা হয়েছে।

এতে পাখিরা নিরাপদে তাদের অভয়াশ্রমে বিচরণ করতে পারছে। ‘অভয়াশ্রম থেকে চলে যাচ্ছে পাখিরা’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হলে প্রশাসনের নজরে আসে।

জানা গেছে, মধুবন গ্রাম সংলগ্ন আত্রাই নদীতে শীতকালে অল্পসংখ্যক পরিযায়ী পাখি ২০১২ সাল থেকে আসতে থাকে। স্থানীয় পাখিপ্রেমী ‘প্রাণ ও প্রকৃতির’ সংগঠনের কিছু যুবক ২০১৩ সালে সেখানে বাঁশ, কচুরিপানা, গাছের ডালপালা দিয়ে অভয়াশ্রম গড়ে তোলেন স্বেচ্ছাশ্রমে।

প্রতি শীতে বালিহাঁস, সরালি হাঁস, পানকৌড়ি, রাতচোরা, বক, মাছরাঙাসহ বিভিন্ন প্রজাতির হাজার হাজার পরিযায়ী পাখির নিরাপদ এ আশ্রয়স্থল।

পাখিপ্রেমীদের বাধাকে উপেক্ষা করে ২০১৬ সাল থেকে জেলা প্রশাসন থেকে বালুমহাল ইজারা নিয়ে ড্রেজার মেশিন বসিয়েছেন বালু ব্যবসায়ী মোয়াজ্জেম হোসেন। অভয়াশ্রম থেকে বালু উত্তোলন শুরু করেন। এতে ড্রেজারের বিকট শব্দে অভয়াশ্রমে বসতে পারছে না পাখিরা।

পাখি প্রেমী কাজী নাজমুল প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, গত বছরও একই কাজ করেছিলেন তিনি (মোয়াজ্জেম হোসেন)। ড্রেজার মেশিন সরিয়ে দিতে অনেক সমস্যাই পরতে হয়েছিল। এ বছর প্রশাসনকে বিষয়টি জানানো পর অভয়াশ্রম থেকে ড্রেজার মেশিনটি সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এখন পাখিরা নিরাপদে অভয়াশ্রমে বিচরণ করতে পারছে।

পিএনএস/হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech