বাল্যবিয়ে দিতে এসে ফেঁসে গেলেন ভুয়া কাজি

  

পিএনএস ডেস্ক: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বাল্যবিয়ে দিতে এসে ফেঁসে গেছেন এক ভুয়া কাজি। তার বিরুদ্ধে ভুয়া কাগজ বানিয়ে অসংখ্য বিয়ে দিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ স্থানীয়দের।

অভিযুক্ত কেরামত আলী ওই উপজেলার কালেঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা।

শুক্রবার দুপুরে একই গ্রামের এক এসএসসি পরিক্ষার্থীর বিয়ে দেয়ার সময় তাকে আটক করে স্থানীয়রা। এ সময় দোষ স্বীকার করেন।

কেরামত আলী বলেন, আমি কাজি নই। আমার ভুল হয়েছে। আমি আর কোনোদিন এ কাজ করবো না।

স্থানীয়দের অভিযোগ, কেরামত আলী নিজেকে কাজী পরিচয় দিয়ে অসংখ্য বিয়ে ও তালাক রেজিস্ট্রি করেছেন। বিনিময়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি। এছাড়া প্রভাবশালী নেতাদের পরিচয় দিয়েও টাকা নিতেন তিনি। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে আটক করে স্থানীয়রা।

ওই ওয়ার্ডের কাজী আনোয়ার হোসেন বলেন, এ ওয়ার্ডে আমি কাজ করার কথা ছিলো। কেরামত আলী রেজিস্ট্রি ফরমের বই জোরপূর্বক নিয়ে বিয়ে পড়াচ্ছিলেন। তিনি কাজি নন।

রহিমপুর ইউপি সদস্য মুজিবুর রহমান মুজিব জানান, গণ্যমান্যদের নাম ভাঙিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়া অন্যায়। কেরামত আলীর বিরুদ্ধে সামাজিকভাবে পদক্ষেপ নেয়া হবে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech