করোনার তথ্য নেওয়ার কথা বলে পুলিশ পরিচয়ে ঘরে ঢুকে দলবদ্ধ ধর্ষণ

  

পিএনএস ডেস্ক : জামালপুরে পুলিশ পরিচয়ে করোনাভাইরাসের তথ্য সংগ্রহের কথা বলে ঘরে ঢুকে এক গার্মেন্টস কর্মীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার রাত ৩টার দিকে জামালপুর সদর উপজেলার মেষ্টা ইউনিয়নের চর জালিয়াপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। সোমবার ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর (১৪) ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর বাবা জানান, প্রথমে পুলিশ পরিচয়ে ৫ যুবক করোনাভাইরাসের তথ্য সংগ্রহের কথা বলে বাড়িতে প্রবেশ করে। সবাইকে মারধর করে তার মেয়েকে তুলে নিয়ে যায় একই গ্রামের মিজান, পুষনসহ পাঁচজন। পরে ঝিনাই নদীর পাড়ে এক জঙ্গলে নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ করে। পরদিন রবিবার সকালে সেখান থেকে আহত অবস্থায় কিশোরীকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা। ওই দিন দুপুরে কিশোরীকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

জামালপুর সদর থানার ওসি সালেমুজ্জামান বলেন, কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে পুষন ও মিজানসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৩ জনকে আসামি মামলা দায়ের করেছেন। এদের মধ্যে মিজান (২০) নামে এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। সোমবার কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন