বিক্রি হয়নি ‘আখাউড়ার টাইগার’!

  

পিএনএস ডেস্ক: এবার ঈদুল আজহায় কোরবানির জন্য এবার ঈদুল আজহায় কোরবানির জন্য বিক্রি হয়নি ৬ লাখ টাকার ব্রাহমা জাতের ‘আখাউড়ার টাইগার’।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার মোগড়া ইউপির ধাতুর পহেলা গ্রামের রফিক সরকার (মিন্টু মিয়া) চার বছর ধরে অনেক আশা নিয়ে সন্তানের মতো লালন-পালন করেছেন। মেয়ের নামে রাখা ‘নাইনা খামারে’ এই উন্নত জাতের ব্রাহমা বিশাল আকারের এ ষাঁড়টি লালন-পালন করেছেন তিনি।

তাই শখ করে কালো সাদা ঝকঝক শরীরের এই ষাঁড়টির নাম রেখেছিলেন ‘আখাউড়ার টাইগার’। এরই মধ্যে বিক্রির জন্য জেলার বিভিন্ন পশুর হাটে তোলা হয়েছিল। ২৫ মণের এই ‘আখাউড়ার টাইগার’ ৬ লাখ টাকা বিক্রি করবেন এমন আশা করেছিলেন বলে আশা করেছিলেন রফিক সরকার। কিন্তু স্থানীয় বাজারে বড় আকাড়ের গরুর দাম কমে যাওয়ায় অনেকটাই বিপাকে পড়ে যান তিনি।

এ দিকে ১৫ দিন পূর্বে আখাউড়ার টাইগারের দাম যেখানে সাড়ে ৪ লাখ টাকা ক্রেতা বলেছে এখন তা কমে সাড়ে ৩ লাখ টাকা এসেছে।

পরিচর্যাকারী এরশাদ মিয়া বলেন, পূর্বের ন্যায় নিয়মিত খাবার, গোসল করানো, পরিষ্কার ঘরে রাখা, টাইগারের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখা ও রুটিন অনুযায়ী ভ্যাকসিন দেয়াসহ চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া হচ্ছে। এদিকে অবিক্রিত আছে রাজাবাবু ও সুলতানও। ওই দুটি গরু উজনে ১৮ মণ।

রফিক সরকার বলেন, আখাউড়ার টাইগারে পালনে খাবার, ওষুধসহ মোটা অংকের টাকা খরচ হয়েছে। এখনো পর্যন্ত সঠিক দাম পাওয়া যায়নি। পাঁচ লাখ টাকায় বিক্রি না হলে লোকসান গুণতে হবে। তবে যত কষ্টই হোক আরো এক বছর লালন-পালন করবো। আশা করছি আগামী ঈদে ভালো দাম পাবো।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন