ঠাকুরগাঁওয়ে আমন ক্ষেতে পোকার আক্রমণে দিশেহারা কৃষকেরা

  


পিএনএস ডেস্ক: ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় কারেন্ট পোকার উপস্থিতি দেখে কৃষকদের রাতের অন্ধকারে মাইকিং করে সচেনতামূলক বার্তা দিচ্ছেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তারা।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) রাতে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তারা গাড়ি বহরে করে কৃষকদের উদ্দেশ্যে মাইকিং করে বলছেন, আপনার ধান ক্ষেতে কারেন্ট পোকা দ্বারা আক্রমণ হলে সম্পূর্ণ রুপে নষ্ট হয়ে যেতে পারে এবং মারাত্মক ক্ষতির সম্ভবনা রয়েছে। কারেন্ট পোকা দমন করতে হলে আপনার ধান ক্ষেত দু-হাত পর পর ফাকাঁ করে দিয়ে অনুমোদিত কীটনাশক দ্বারা ধান গাছের গোড়ায় স্প্রে করে দিন। আর বিস্তারিত তথ্যের জন্য কৃষি কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করুন।

শুধু মাইকিং নয় উঠান বৈঠক থেকে শুরু করে পোকা আক্রমণের লক্ষণ ও দমনে স্প্রে করার নিয়মবালীর চিরকুট বিতরণ করছে কর্মকর্তারা।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এবার উপজেলায় ২১ হাজার ৪ শত ৫০ হেক্টর জমিতে আমন ধান চাষ হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, এবারে আমন ধানের বাম্পার ফলন হওয়ার সম্ভবনা ছিল। কিন্তু ধান রোপনের পর থেকে লাগাতার ভারি বর্ষণের কারণে রের্কডবিহীন কারেন্ট পোকা আক্রমণ শুরু হয়। আর ধান খেতে কারেন্ট পোকা দমনে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছে কৃষি কর্মকর্তারা। তারা দিন রাত কৃষকের পাশে থেকে সঠিক পরামর্শ দেওয়ায় বর্তমানে উপজেলায় কারেন্ট পোকা অনেকটা নিয়ন্ত্রণে।

কৃষক আনোয়ার জানান, আমার জমিতে বর্ষণের পানি জমাট বেঁধে ছিল। পানি শুকিয়ে যাওয়ার পরই ধানে ব্যাপক কারেন্ট পোকার আক্রমণ হয়। পরে কৃষি কর্মকর্তাদের অবগত করলে তারা নিজে এসে ধান ক্ষেতে কিভাবে স্প্রে করতে হবে তা আমাকে দেখিয়ে দেয়।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সঞ্জয় দেবনাথ বলেন, কারেন্ট পোকা দমনে কৃষকদের সহায়তা দিতে আমরা দিন রাত কাজ করে যাচ্ছি। বিশেষ করে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা সরেজমিনে ধান ক্ষেত পরির্দশন করছে।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন