এনজিওর কিস্তি পরিশোধ করতে না পেরে গৃহবধূর আত্মহত্যা

  

পিএনএস ডেস্ক: এনজিওর টাকা (কিস্তি) পরিশোধ করতে না পেরে সুমি আক্তার (২৫) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে। বুধবার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে রায়পুর শহরের পোষ্ট অফিস সড়কের বয়াতি বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত গৃহবধূ একই এলাকার রিকশা চালক মনির হোসেনের স্ত্রী। তাদের সংসারে দুই সন্তান রয়েছে। লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনার নিহতের স্বামী থানায় ইউডি মামলা করেছেন।

নিহত গৃহবধূর স্বামী কিরন জানান, অভাবের কারণে ব্রাক-প্রশিকাসহ কয়েকটি এনজিও ও স্থানীয় সমিতি থেকে প্রায় দুই লাখ টাকা কিস্তি নিয়ে বসতঘর নির্মানসহ রিক্সা ক্রয় করেন। প্রতিদিন ও সপ্তাহে কিস্তির টাকা জমা দেয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু করোনায় ও বেশি অভাবগ্রস্ত হয়ে পড়ায় সময়মত কিস্তি পরিশোধ করতে সমস্যা দেখা দেয়। কিন্ত এনজিও ও সমিতির কর্মকর্তারা প্রতিদিন কিস্তি আদায়ের জন্য মানষিক নির্যাতন করতো তাদের দুজনকে। বুধবার কিস্তির টাকার জন্য কর্মকর্তারা চাপ সৃষ্টি করলে, তা দিতে না পারায় স্বামীর সাথে অভিমান করে গৃহবধু সুমি নিজের কক্ষে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

রায়পুর পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজি নাজমুল কাদের গুলজার বলেন, কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পেরে আত্মহত্যা খুব দুঃখজনক। অসহায় পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, ঘটনাটি দুঃখজনক। গৃহবধূর মৃত দেহ (লাশ) উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় ইউডি মামলা করা হয়েছে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন