স্বামীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণ

  

পিএনএস ডেস্ক: একের পর এক ধর্ষণকাণ্ডে দেশে নারীর পারিবারি-সামাজিক নিরাপত্তা যখন ক্রমেই ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে ঠিক এমন সময় মাগুরায় আরও এক গৃহবধূ গণধর্ষণের শিকার হলেন। স্বামীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

গেল শনিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে সদর উপজেলার জাগলা গ্রামের একটি মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় অজ্ঞাত ৫ জনকে আসামি করে গতকাল রবিবার মামলা দায়ের করেছেন নির্যাতিতা ওই গৃহবধূ।

ভুক্তভোগীর স্বামী জানিয়েছেন, তিনি ও তার স্ত্রী আমন ধান মৌসুমে বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে ধান সংগ্রহের কাজ করেন। প্রায় ২০ দিন আগে ধান সংগ্রহ করার জন্য ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলা থেকে মাগুরা সদর উপজেলায় ধান সংগ্রহের জন্য আসেন তারা। রাতে থাকার জায়গার অভাবে একটি মাঠে পলিথিনের তাবু খাটিয়ে থাকছিলেন তারা।

তিনি জানান, শনিবার রাতে অপরিচিত ৫ জনের একটি দল ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাদের ওপর হামলে পড়ে। হত্যার হুমকি দিয়ে তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে ফেলা হয়। পরে তার স্ত্রীকে পাশের একটি পুকুরের কাছে নিয়ে গণধর্ষণ করে দুর্বৃত্তরা। এসময় তাদের কাছে থাকা ৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়া হয়। ঘটনা টের পেয়ে এলাকার লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘এ ঘটনায় ‘ধর্ষণের শিকার’ ওই গৃহবধূ রবিবার দুপুরে মাগুরা সদর থানায় অজ্ঞাতনামা ৫ জনকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।’

ওসি জানান, এরইমধ্যে ভুক্তভোগী নারীর মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন