তেঁতুলিয়ায় দুই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, আটক ৩

  

পিএনএস ডেস্ক : পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার নিজবাড়ি এলাকায় দুই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। বুধবার বিকেলে তেঁতুলিয়া থানায় এ ব্যাপারে মামলা করেছেন ওই দুই স্কুলছাত্রীর বাবা। ধর্ষণ এবং ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে তিন যুবককে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার দেবনগড় ইউনিয়নের নিজবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আটককৃতরা হলেন কাউরগছ গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের ছেলে ওমর ফারুক ইমন (২০), একই গ্রামের দারাজ উদ্দিনের ছেলে আনোয়ার হোসেন (২৫) এবং বামনপাড়া গ্রামের এনামুল হকের ছেলে সোহাগ (২২)। বুধবার বেলা ১১টায় অভিযুক্ত ওই তিন যুববকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ থানায় নিয়ে গেলে পরে তাদের ধর্ষণ মামলায় আটক দেখানো হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার সকালে ওই দুই স্কুলছাত্রীকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে বাড়ি থেকে বের করে বিভিন্ন এলাকায় নিয়ে যায় আনোয়ার ও ইমন। পরে রাতে তাদের দুজনকে জোর করে মালিগছ এলাকার আড়িয়া খুড়ি দিঘির পাড়ের একটি বটগাছ তলায় নিয়ে যাওয়া হয়।

এ সময় তাদেরকে বেশ কয়েকজন ধর্ষণ করে। পরে তাদেরকে রেখে জড়িতরা পালিয়ে যায়। গভীর রাতে ওই দুই শিক্ষার্থী দুসম্পর্কের এক বাড়িতে আশ্রয় নেয়। বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ি ফিরে বাবা মাকে ঘটনা জানায় তারা। পরে বাবাসহ তারা দুজনেই তেঁতুলিয়া মডেল থানায় হাজির হয়।

জানা গেছে, আটক সোহাগ এ ঘটনার পরিকল্পনা করে সহযোগিতা করে। দুপুরে ওই দুই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে তেঁতুলিয়া মডেল থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ ধর্ষণের অভিযোগে ইমন ও আনোয়ারকে এবং ধর্ষণের কাজে সহযোগিতা করার দায়ে সোহাগকে আটক করে।

এ বিষয়ে পঞ্চগড় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুর্দশন কুমার রায় জানান, দুই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে তিন যুবককে আটক করা হয়েছে এবং তাদের জেলহাজতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। ে দুই ছাত্রীর স্বাস্থ্য পরিক্ষার জন্য মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

পিএনএস/এসআইআর


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন