বরিশালে শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, আসামির মৃত্যুদণ্ড

  

পিএনএস ডেস্ক: বরিশাল নগরীর এয়ারপোর্ট থানাধীন কাশিপুর ইউনিয়নে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সিমা (৮)কে ধর্ষণ শেষে হত্যা ও লাশ গুম করার অপরাধে পৃথক তিনটি ধারায় আসামি আবুল কালাম আজাদকে মুত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

এছাড়া ভিন্ন দুটি ধারায় ওই যুবককে যাবজ্জীবন ও সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদানসহ দেড় লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। বৃহস্পতিবার (০৩ ডিসেম্বর) বেলা ১২ টায় বরিশালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মু আবু শামীম আজাদ এ রায় ঘোষণা করেন। এ সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আইন ও শালিশ কেন্দ্রের পক্ষ থেকে শিমার পরিবারকে আইনি সহায়তা দেওয়া আইনজীবী মোকলেচুর রহমান খান জানান, ২০১৮ সালের ১১ই মার্চ আনুমানিক দুপুর ২টারদিকে শিক্ষার্থী সিমা (৮) স্কুলের পার্শবর্তী আবুল কালাম আজাদ কালুর বাড়ির বাথরুমে গেলে সে সময় কালুর বাড়িতে কেহ না থাকার সুযোগে সিমাকে ধর্ষণ করে। এরপর ওই শিশুকে হত্যা করে বস্তায় ভরে হালিম মাস্টারের পারিবারিক কবরস্থানে ফেলে দিয়ে আসেন।

পরবর্তীতে (১৩ মার্চ) এয়ারপোর্ট থানা পুুিলশ কবরস্থান থেকে বস্তাবন্ধি অবস্থায় সিমার লাশ উদ্ধার করে হয়।

এ ঘটনায় শিশু সিমার মা মাহমুদা বেগম বাদী হয়ে এয়ারপোর্ট থানায় একটি ধর্ষণ ও হত্যা মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে একই বচরের (২০ সেপ্টেম্বর) তদন্তকারী কর্মকর্তা আ রহমান মুকুল আদালতে কালুর বিরুদ্ধে চার্জশিট প্রতিবেদন দাখিল করে।

পরবর্তী সময়ে মামলাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিচারকার্য শেষ করার জন্য প্রেরণ করা হয়। ট্রাইব্যুনাল দীর্ঘ দেড় বছর মামলাটি পরিচালনাকালে তদন্তকারী কর্মকর্তা সহ ১০জনের স্বাক্ষগ্রহণ শেষে নারী ও ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক আসামি আবুল কালাম আজাদ কালুকে ধর্ষণের অপরাধে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করে।

রায়ে একই সময় সিমাকে অপহরণ করার অপরাধে যাবজ্জীবন ও লাশ ঘুম করার অপরাধে ৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের পাশাপাশি আসামির স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রি করে বিকটিম পরিবারকে দেড় লক্ষ টাকা দেয়ার আদেশ প্রদান করেন।

এ সময় সরকার পক্ষের কৌশলী অ্যাড ফায়জুল হক ফয়েজ বলেন, আজকে বিজ্ঞ বিচারক একটি শিশু সিমাকে ধর্ষণ শেষে হত্যা করার অপরাধে একটি সর্ব্বচ্চ সাজা প্রদান করেছে। এই যুগান্তকারী রায় প্রদান করায় আমরা রায়ে সন্তষ্ট প্রকাশ করি।

তিনি আরও বলেন- ‘আমরা সরকারের পক্ষ থেকে আসা করি এ ধরনের রায়ে অপরাধীরা এ ধরণের অপরাধকাণ্ড থেকে দুরে থাকবেন। ’

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন