সম্পত্তির লোভে সৎ ভাইকে বিষপানে হত্যার অভিযোগ

  

পিএনএস ডেস্ক : লালমনিরহাটে ইউনুস আলী (৫) নামে এক শিশুকে বিষপানে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার বিমাতা (সৎ) ভাইয়ের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার জেলার আদিতমারী উপজেলার কমলাবাড়ি ইউনিয়নের চন্দরপাট বুড়িরদীঘি গ্রামে নিজ বাড়িতে শিশুটির মৃত্যু হয়। সে ওই গ্রামের ছফর উদ্দিন - আছমা বেগম দম্পত্তির ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ১০ বছর আগে বিধবা আছমা বেগমকে দ্বিতীয় স্ত্রী হিসেবে বিয়ে করেন বুড়িরদীঘি এলাকার ছফর উদ্দিন। বড় স্ত্রী রাহেনা বেগমের ঘরে ৬ মেয়ে ও একমাত্র ছেলে রাহিম মিয়া (১৮) এবং দ্বিতীয় স্ত্রী আছমার ঘরে এক মেয়ে ও একমাত্র ছেলে ইউনুস আলী (৫)।

প্রথম দিকে দ্বিতীয় স্ত্রীকে পৃথক বাড়ি করে দিলেও কিছুদিন হয় পুরাতন বাড়িতেই দুই স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে বসবাস করছেন ছফর উদ্দিন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রথম স্ত্রীর ছেলে রাহিম মিয়া তার একমাত্র বিমাতা (সৎ) ভাই ইউনুস আলীকে মধু বলে কিছু খাওয়ায়। এর কিছুক্ষণ পরে ইউনুস কালো রঙের বমি করে অসুস্থ হয়ে পড়ে। হাসপাতালে নেয়া চেষ্টা করলেও নিতে দেয়নি বাবা ছফর উদ্দিন। অসুস্থতা বেড়ে গেলে শুক্রবার বিকেলে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক এসে হাসপাতালে পাঠানোর নির্দেশ দেন। কিন্তু তারপরেও অসুস্থ ইউনুসকে হাসপাতালে নিতে দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেন ইউনুসের মা আছমা বেগম। সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতেই মারা যায় ৫ বছরের শিশু ইউনুস আলী।

ঘটনার পর বৃহস্পতিবার রাত থেকেই অভিযুক্ত রাহিম মিয়া পলাতক। ইউনুসের মৃত্যুর পর তার বাবা ছফর উদ্দিনও আত্মগোপনে আছেন।

মৃত ইউনুসের মা আছমা বেগম জানান, সম্পত্তির ভাগ একাই ভোগ করতে আমার ইউনুসকে মধু বলে বিষ খাইয়ে হত্যা করেছে লম্পট রাহিম। ঝামেলা এড়াতে তাকে হাসপাতালে নিতে দেয়নি। এখন খুনি রাহিম ও তার বাবা পালিয়েছে। তিনি ছেলে হত্যার বিচার দাবি করেন।

আদিতমারী থানার ওসি সাইফুল ইসলাম জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়েছি। ঘটনাস্থলে অফিসার পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।।

পিএনএস-জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন