কানে ধরে পানিতে ডুব দিয়ে নির্বাচন না করার প্রতিজ্ঞা

  

পিএনএস ডেস্ক : শীতের বিকেলে খালের কোমরপানিতে নেমেছেন এক ব্যক্তি। তিনি মোকলেছুর রহমান। এবারের পৌরসভা নির্বাচনে মেহেরপুরে গাংনীর ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হয়েছেন। একে একে সাতটি ডুব দিয়েছেন। কানে ধরে ওঠবস করেছেন। প্রতিজ্ঞাও করেছেন, আর জীবনে নির্বাচন করবেন না।

গতকাল রোববার নিজ এলাকায় এ কাণ্ড ঘটান মোকলেছুর। সাতবার ডুব দেওয়ার সময় জোরে জোরে বলেছেন, ‘আর জীবনে বেঁচে থাকা পর্যন্ত কমিশনার ভোট আর করব না, করব না, করব না।’

মোকলেছুরের বাড়ি মেহেরপুরের গাংনী পৌরসভার পূর্ব মালশাদহ এলাকায়। তার কানে ধরে পানিতে ডুব দিয়ে প্রতিজ্ঞা করার একটি ভিডিও সামাজিক যোগযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক আলোচনা চলছে।

স্থানীয়রা জানান, শনিবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে হেরে যান মোকলেছুর রহমান। গতকাল রোববার বিকেলে এলাকার একটি দোকানে আড্ডা দিচ্ছিলেন তিনি। স্থানীয়দের সঙ্গে আলারত অবস্থায় আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন তিনি। পরে নির্বাচন না করার প্রতিজ্ঞা করেন খালের পানিতে নেমে কান ধরে ওঠবস করার মাধ্যমে। এ ঘটনাটি নিজেই ভিডিও করার জন্য বলেন মোকলেছুর।

নির্বাচনের ফলাফল অনুযায়ী, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ফাইল কেবিনেট প্রতীকে নাছির উদ্দীন ৩৩৪ ভোট পেয়ে জয় লাভ করেছেন। বর্তমান কাউন্সিলর নবীর উদ্দীন (ডালিম) ৩১৭ ভোট, রবিউল ইসলাম (গাজর) ২৬৩ ভোট, মোকলেছুর রহমান (টেবিল ল্যাম্প) ১২৫ ভোট, আজির উদ্দীন (স্ক্রু ড্রাইভার) ৯৫ ভোট ও মনিরুজ্জামান (পানির বোতল) ৮৬ ভোট পেয়েছেন।

ঘটনার ব্যাপারে মোকলেছুর রহমান জানান, ক্ষমতা অপব্যবহার করে ইভিএমের বোতামে নিজেদের ইচ্ছেমতো বোতামে টিপে ভোট নেওয়া হয়েছে। জনগণ তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেননি। এ কারণে নির্বাচন ব্যবস্থার ওপরে হতাশ হয়ে আর কোনো দিন নির্বাচনে না দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। প্রহসনের নির্বাচনে আর অংশগ্রহণ করবেন না বলে কান ধরে পানিতে ডুব দিয়েছেন।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন