ঘন কুয়াশায় উপকূলীয় জনজীবন বিপর্যস্ত

  

পিএনএস, পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : ঘন কুয়াশার চাঁদরে ঢাকা পড়ছে প্রকৃতি। শৈতপ্রবাহ, ঘন কুয়াশা, অধিক রাতে ও প্রভাতে বৃষ্টির ন্যায় গুড়ি গুড়ি কুয়াশা ঝরছে। ঘন কুয়াশায় বিঘ্নিত হচ্ছে যান চলাচল। ফলে দিনে সড়কে হেডলাইট জ্বালিয়ে যান চলাচল করতে দেখা গেছে। এমন পরিবেশ সৃষ্টি হওয়ায় খুলনার পাইকগাছাসহ উপকূলীয় মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যহত হচ্ছে। গত কয়েকদিন টানা শৈত্যপ্রবাহ আর ঘন কুয়াশায় উপকূলীয় জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। নিম্ন আয়ের সাধারণ মানুষ, বিশেষ করে দিনমজুর ও রিকশা ও ভ্যানচালকদের জন্য এই সময়টা দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে। রাস্তায় সাধারণ মানুষের চলাচল সীমিত হয়ে পড়েছে। সারাদিনে অল্পো সময় দেখা মিলছে সূর্য্যরে আলো। পাশাপাশি বেড়েছে শীতজনিত রোগে আক্রান্ত শিশু ও বয়স্কদের সংখ্যা। অধিকবেলা পর্যন্ত থাকছে অন্ধকারাচ্ছন। ঘন কুয়াশার কারণে প্রতিদিনের কাজকর্ম কিছুটা দেরিতে শুরু হচ্ছে। গ্রাম অঞ্চলে তীব্র কুয়াশার পাশাপাশি শহর অঞ্চলেও কুয়াশার প্রভাব পড়ছে। বিকেলের আলো থাকতেই কুয়াশা শুরু হচ্ছে। নদীতে ট্রলার নৌকাসহ নৌ জাহান চলাচলে মারাত্মক বিঘ্নিত হচ্ছে। ঘন কুয়াশায় খেয়া পারাপারে যাত্রীরা বিড়ম্বনার পড়ছে। এতে করে তারা কর্মস্থানে সঠিক সময় পৌঁছাতে সমস্যা হচ্ছে। ঘন কুয়াশা আর হিমেল হাওয়ায় শিশু, বয়স্করা স্বর্দি জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছে। শ্বাস কষ্টের রোগীদের কষ্ট বেড়েছে।

এ প্রসঙ্গে পাইকগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও প প কর্মকর্তা ডাঃ নীতিশ চন্দ্র গোলদার জানান, কুয়াশার মধ্যে শিশু ও বৃদ্ধদের বাহিরে বের না হওয়া ভাল, গরম কাপড় ব্যবহার করতে হবে এবং ঠান্ডা পানিতে গোসল করা যাবে না। কুয়াশার মধ্যে গরম কাপড় ব্যবহার করে সাবধানে চলাচল করতে হবে। এদিকে, শৈত্যপ্রবাহে আলু ক্ষেত, পান ও বোরো বীজতলার কিছুটা ক্ষতি হচ্ছে। পান গাছ থেকে পান হলুদ হয়ে ঝরে পড়ছে। এতে করে পান চাষীরা ক্ষতি শিকার হচ্ছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম জানান, ঘন কুয়াশায় শাক সবজির কিছুটা ক্ষতি হচ্ছে। বোরো ধানের বীজতলার চারা বড় হয়ে যাওয়ায় তেমন একটা ক্ষতির সম্ভবনা নেই। তবে রোপণকৃত বোরো ক্ষেতের চারা সূর্য্যরে আলো ঠিকমত না পাওয়ায় খাদ্য তৈরী করতে পারছে না। এতে করে চারা হলুদ বর্ণ ধারণ করছে। এব্যাপারে কৃষকদের তীব্র শীতের মধ্যে বোরো চারা রোপণ করতে নিষেধ করা হয়েছে। শীত একটু কমলে বোরো আবাদ করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া উপজেলার বিভিন্ন ব্ল¬কে কৃষি অফিসের মাধ্যমে কুয়াশার প্রভাব থেকে সবজি ক্ষেত ও বোরো ক্ষেত রক্ষা করার জন্য বিভিন্ন প্রকার পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে।

পিএনএস/এসআইআর

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন