সরাইলে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম এর দাফন সম্পন্ন

  

পিএনএস ডেস্ক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা সরাইল উপজেলাআওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম(৮৫) এর জানাযা ও রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ২১জানুয়ারীবাদ আছর সরাইল অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জানাজা ও রাষ্ট্রীয় সম্মান গার্ড অফ অনার প্রদান করা হয়েছে।

জানাজায় হাজার হাজার মানুষের ঢল নামে। সরাইল উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুল হক মৃদুল মরহুমের কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও এর অঙ্গসংগঠন, বিভিন্ন সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ,উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক মিডিয়া ব্যক্তিত্ব বিবিসি টোয়েন্টিফোরের নির্বাহী সম্পাদক এমডি জালাল মিয়া, সহ সরাইল উপজেলার সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সংগঠনের পক্ষ থেকে স্ব স্ব সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে একদল চৌকুষ পুলিশ গার্ড অফ অনার প্রদান করে রাষ্ট্রীয় সম্মান জানান। পরে জানাযার নামায অনুষ্ঠিত হয়। সরাইল বিকাল বাজার শাহী জামে মসজিদের পেশ ইমাম ও খতিব শেখ আমান উল্লাহ জানাযায় ইমামতি করেন। আওয়ামী লীগ নেতা হাজী মাহফুজ আলীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত জানাজাপূর্ব আলোচনায় বক্তব্য রাখেন সাবেক এমপি এডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব রফিক উদ্দিন ঠাকুর, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল আলম খোকন, সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক এডভোকেট নাজমুল হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট আব্দুর রাশেদ, জেলা যুবলীগের সভাপতি এডভোকেট শাহনুর ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস, সরাইল উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার এম এফ আনোয়ার হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা কুতুব উদ্দিন ভূইঁয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজবাহ উদ্দিন মোসন, পানিশ্বর ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা দ্বীন ইসলাম, অরুয়াইল ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান, পরিবারের পক্ষ থেকে মরহুমের মেজ ছেলে এডভোকেট হুমায়ুন মোর্শেদ প্রমুখ। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী, বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মী ও এলাকার ধর্মপ্রাণ হাজারো মানুষ জানাজায় অংশগ্রহন করেন। জানাজা শেষে মরহুমের গ্রামের বাড়ি আইরল কাটানিশার এলাকায় লাশ নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বাদ মাগরিব দ্বিতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়েছে। মৃত্যুকালে তিনি ৩ পুত্র ও ২মেয়েসহ অসংখ্য আত্বীয়-স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। উল্লেখ্য আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম আজ বৃহস্পতিবার (২১জানুয়ারী) সকাল ১০টায় ঢাকা বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন(ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। বার্ধক্যজনিত কারনে শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে দীর্ঘ দিন ধরে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের আইরল কাটানিশার এলাকার এই সূর্য সন্তান সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের একাধিকবার নির্বাচিত সভাপতি ছিলেন। মুক্তিযোদ্ধের অন্যতম সংগঠক হিসেবে হাপাঁনিয়া তিতাস ক্যাম্পের চিফ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদ মহান জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে এমপি পদে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে ২ বার নির্বাচনে প্রতিদ্বতা করে ছিলেন। সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতা-কর্মীদের কাছে তিনি হালিম ভাই হিসেবে সুপরিচিত ছিলেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের মুন্সেফপাড়ায় নিজস্ব বাড়ি করে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করলেও শারীরিকভাবে অসুস্থ হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত দলীয় রাজনীতির টানে তিনি সকাল থেকে রাত অবদি দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে সরাইলে বিচরণ করেন তবে অসুস্থতাজনিত কারনে রাজনৈতিক অঙ্গন ছেড়ে নিজ বাসায় দীর্ঘদিন চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদের মৃত্যুতে সরাইলের রাজনৈতিক অঙ্গনসহ বিভিন্ন মহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বিভিন্ন মহলের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করে শোক সন্তোপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়েছে।

পিএনএস-জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন