অসময়ে বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেল জমি-পুকুর

  

পিএনএস ডেস্ক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের সোহাগপুর এলাকায় বিএডিসির বাধ ভেঙ্গে পানিতে তলিয়ে গেছে প্রায় ৭০ থেকে ৮০ একর ধানী জমিসহ লাখ লাখ টাকার পুকুরের মাছের তলিয়ে যায়। এতে প্রায় শতাধিক কৃষক দিশেহারা হয়ে পড়েছে।


ক্ষতিগ্রস্তরা বলছেন, এ ঘটনায় অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটায়। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের আহাজারিতে আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে।

আশুগঞ্জ বিএডিসি অফিস জানায়, মঙ্গলবার দুপুর আনুমানিক আড়াইটায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের আশুগঞ্জ উপজেলার সোহাগপুর গ্রামের আব্বাস উদ্দিন খান সড়কের নিকট মাটির বাধ ভেঙ্গে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে আশুগঞ্জ বিএডিসির লোকজন প্রধান স্লুইস গেট বন্ধ করে দেয়। ততক্ষণে প্রায় ৭০-৮০ একর সদ্য লাগানো ধানী জমি পানিতে তলিয়ে যায়।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা বলছেন, বিএডিসির বাধ ভেঙে পানিতে তলিয়ে গেছে প্রায় ৭০ থেকে ৮০ একর ধানী জমি।এখন তারা নতুন করে এসব ধানী জমি লাগানো সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেন।

বিএডিসির পানিতে তলিয়ে যাওয়া যাওয়া ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক জামাল চৌধুরী বলেন, বিএডিসির বাঁধ ভেঙে কৃষি জমিসহ আমার পুকুরের অন্তত ৬-৭ লাখ টাকার মাছ পানিতে ভেসে গেছে।এতে আমি এখন নিঃস্ব হয়ে পড়েছি। আমি এ বিষয়ে সরকারের কাছে আমি আমার ক্ষতিপুরণ দাবী করছি। ক্ষতিপূরণ না পেলে আমার পরিবার পরিজন নিয়ে একবারে রাস্তায় নামা ছাড়া কোনো উপায় থাকবে না।

মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে সোহাগপুর এলাকায় বাধ ভেঙে বিএডিসির খালের পানি কৃষি জমিতে প্রবেশ করে ধানী জমি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে আশুগঞ্জ বিএডিসির সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ খলিলুর রহমান বলেন, আমরা ইতিমধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত অংশ মেরামত করার কাজ শুরু করে দিয়েছি। আশা করছি বুধবারের মধ্যে মেরামত কাজ শেষ করে পানি প্রবাহ স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে পারব। তবে কি পরিমাণ ধানী জমি এবং পুকুরের মাছ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তা তদন্ত না করে বলা যাবে না।

খবর পেয়ে আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অরবিন্দ বিশ্বাস ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেন, ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার জন্য জেলা প্রশাসকসহ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করবেন।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন