পুত্রবধূর হাতে শশুর খুন!

  

পিএনএস ডেস্ক : ঢাকার ধামরাইয়ে লাবিব রহমান লাবু (৭৫) নামের এক বৃদ্ধকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে পুত্রবধূ সুমি আক্তারের (৪০) বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় সুমি আক্তার, তার বাবা সামসুল হক এবং মা শাহিদাকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরের দিকে উপজেলার বাইশাকান্দা ইউনিয়নের গোলাকান্দা গ্রামে ওই নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত লাবু উপজেলার বাইশাকান্দা ইউনিয়নের গোলাকান্দা গ্রামের মৃত খালেকের ছেলে। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, লাবু তার ৬ বিঘা জমি ছেলে জিয়াউর রহমানকে কয়েক বছর আগে লিখে দেন। বাকি সম্পত্তি লিখে দেন মেয়েকে। মেয়েকে জমি লিখে দেয়ার পর থেকেই শশুরের ওপর অত্যাচার করতো ওই পুত্রবধূ। নিয়মিত খেতেও দিতো না। মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবার চেয়ে খেতেন বৃদ্ধ লাবু। এ নিয়ে মাঝেমধ্যেই শশুরকে মারধর করতো পুত্রবধূ সুমি। এ নিয়ে এলাকায় একাধিকবার সুমির নামে বিচার করেছে স্থানীয়রা। তারপরও ক্ষান্ত হননি তিনি।

মঙ্গলবার লাবুকে মারধর করে পুত্রবধূ ও তার দুই নাতি। তাকে মেরে রক্তাক্ত করে। এক পর্যায়ে মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর শশুরের লাশ তার শোবার ঘরে রেখে পুত্রবধূ নিজের ঘরে গিয়ে দরজা আটকে দেন। পরে নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখে পুলিশে খবর দেয় এলাকাবাসী। পরে খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

স্থানীয় বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা সালামত খান বলেন, পুত্রবধূ সুমি লাবিবকে নিয়মিত মারধর করতো। ঠিকমতো খেতে দিতো না। একাধিকবার সুমির বিচার করা হয়েছে। কিন্তু আজকে একেবারে মেরেই ফেলেছে। সুমি খুব খারাপ মেয়ে। পুলিশ একে ধরে নিয়ে গেছে। এর যেন সঠিক বিচার হয়।

একাধিক স্থানীয় ব্যক্তি জানান, নিহতের ছেলে জিয়াউর রহমান তার বোনকে দেয়া সম্পত্তি আত্মসাৎ করার জন্য স্ত্রীকে দিয়ে বাবার ওপর অত্যাচার করাতো। বোনকে জমি লিখে দেয়ার পরও তাকে দখলে যেতে দেয়নি সে। এ জন্যই নিয়মিত মারধর করতো পুত্রবধূ সুমি।

এ নিয়ে এলাকায় বেশ উত্তেজনা বিরাজ করছে। এলাকাবাসী সুমির ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। নিহত লাবিব রহমান লাবুর ছেলে জিয়াউর রহমান ব্রাহ্মণবাড়িয়া পল্লীবিদ্যুৎ অফিসে চাকরি করেন।

এ বিষয়ে ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জসিম উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে, এটি একটি হত্যাকাণ্ড। তবে ময়নাতদন্তের পরই মৃত্যুর কারণ জানা জাবে। এ ঘটনায় নিহতের পুত্রবধূ ও পুত্রবধূর মা-বাবাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

পিএনএস/এসআইআর

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন