মোবাইল ব্যবহারে বাধা দেওয়ায় কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

  

পিএনএস ডেস্ক: যশোরের মণিরামপুরে বৃন্তিলা পাল (১৭) নামে এক কলেজছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার (৯ জুন) রাত ১১টার দিকে স্বজনরা নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশটি উদ্ধার করেন। বৃন্তিলা উপজেলার চিনাটোলা গ্রামের দেবকুমার পালের মেয়ে। সে স্থানীয় একটি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী।

মোবাইল ফোন ব্যবহারে বাধা দেওয়ায় মায়ের উপর অভিমান করে কলেজছাত্রী আত্মাহুতি দিয়েছে বলে দাবি স্বজনদের। এই ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১০জুন) সকালে কলেজ ছাত্রীর কাকা সুকুমার পাল বাদি হয়ে থানায় অপমৃত্যু মামলা করেছেন।

শ্যামকুড় ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনি বলেন, বৃন্তিলা লেখাপড়া ছেড়ে মোবাইল ফোন ব্যবহারে অতিরিক্ত আসক্ত হয়ে পড়ে। বুধবার রাতে এই নিয়ে তার মা অলোকা পাল তাকে বকাঝকা করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নিজ ঘরের দরজা বন্ধ করে আড়ার সাথে ওড়না জড়িয়ে গলায় ফাঁস দেয় সে। রাতে খাবারের জন্য পরিবারের লোকজন তাকে ডাকাডাকি করেন। কোন সাড়া না পাওয়ায় দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকু স্বজনরা বৃন্তিলাকে ঝুলতে দেখেন। পরে তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে কলেজছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেন।

মণিরামপুর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান বলেন, এই ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এই বিষয়ে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন