কি কারণে সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণা করেন নারীরা?

  

পিএনএস,ডেস্ক : সম্পর্কের প্রতারণার প্রসঙ্গ উঠলেই প্রায় সব নারীরাই অভিযোগের আঙুল তোলেন পুরুষদের দিকে। তবে নারীরাও যে খুব পিছিয়ে নেই, সেটাও বলাই বাহুল্য। কোনো কোনো কারণে সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণা করেন নারীরা? জানার জন্য একটি অনলাইন সমীক্ষা করেছিল এক ব্রিটিশ ওয়েবসাইট। তাতে সামনে এসেছে প্রতারণার বিচিত্র কিছু কারণ।
তার থেকেই সংস্থাটি বেছে দিয়েছে আট নারীর প্রতারণার সবচেয়ে বিচিত্র অজুহাতগুলিকে।

❏ ‘অনেক দিন ধরে ওজন কমানোর চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু জিমে যাওয়ার বা ডায়েট করার মতো কাজগুলো করার উৎসাহ ছিল না। শুনেছিলাম, যৌনতায় প্রচুর পরিমাণ ক্যালরি খরচ হয়। তাই একাধিক সঙ্গীর সঙ্গে দিনে তিন-চারবার করে মিলিত হতাম। তবে আসল প্রেমিককে বঞ্চিত করিনি কখনো।’
❏ ‘অনেক চেষ্টা করেও প্রেমিকের নাক ডাকা থামাতে পারিনি। একরাতে বিরক্ত হয়ে প্রতিবেশীর বাড়িতে চলে যাই। সেখানেই প্রতিবেশীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হই।’

❏ ‘ পার্টিতে প্রচুর মদ্যপান করে ফেলেছিলাম। বাড়িতে ফেরার উপায় ছিল না। তাই পার্টিতে গিয়ে সদ্য পরিচিত এক বন্ধুকে অনুরোধ করি, যাতে সে আমাকে তার বাড়িতে থাকতে দেয়। বিনিময়ে তার শয্যাসঙ্গী হতে রাজি হয়ে যাই।’

❏ ‘এক দুপুরে ইন্টারনেট সংযোগ ঠিক মতো কাজ করছিল না। সময় কাটানোর জন্য কিছুই করার ছিল না। আমার স্বামী অফিসে ছিল। তাই সেই ফাঁকে সময় কাটানোর জন্য বোনের বন্ধুকে বাড়িতে ডেকে নিই।’

❏ ‘স্বামী যৌনতায় তেমন একটা পটু নয়। দক্ষ প্রেমিকরা শারীরিক ঘনিষ্ঠ হওয়ার সময় কী কী করেন, সেটা জানার জন্য পুরুষ যৌনকর্মীর শরণাপণ্ন হয়েছি।’

❏ ‘ব্যক্তিগত বিষয়ে নাক গলানোর কারণে স্বামীর এক বন্ধুকে খুবই অপছন্দ করতাম। যৌনতার প্রলোভন দেখিয়ে তার ঘনিষ্ঠ হই। তারপরে নখ দিয়ে আঁচড়ে তাকে রক্তাক্ত করে দিই। পরে বলেছিলাম, উত্তেজনা নিয়ন্ত্রণ না করতে পেরেই অনিচ্ছাকৃত ভাবে এমনটা ঘটে গিয়েছে।’

❏ ‘বহুবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও টাকা ধার নিয়ে শোধ দিচ্ছিল না আমার এক সহপাঠী। প্রেমের অভিনয় করে তার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হই। যৌনতার মাঝখানে, ইচ্ছে করে তাকে ফেলে চলে আসি। একবার নয়, তিনবার এমনটা করেছি।’

তবে প্রতারণার কারণ হিসাবে এই সমীক্ষায় সবচেয়ে বেশিবার সামনে এসেছে সঙ্গীর সময় দিতে না পারা, যৌনতায় অনাসক্তি এবং মাদকের প্রভাবই।


পিএনএস/বাকিবিল্লাহ্



 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech