অভিনেত্রী শায়লাকে নিপিড়নের অভিযোগে জবি ছাত্র কারাগারে

  20-10-2023 11:35PM


পিএনএস ডেস্ক : জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান চলাকালে নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষার্থী ও ছোট পর্দার অভিনেত্রী শায়লা সাথীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে আটক ছাত্রকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

শুক্রবার (২০ অক্টোবর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলামের আদালত এ আদেশ দেন। এর আগে রাজধানীর কোতোয়ালি থানায় দায়ের করা এক মামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র মেহেদী হাসান সৈকতকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলার এজাহারে ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী বলেন, মেহেদী (২০১৯-২০ সেশন) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর একদিন ক্যাম্পাসে নিজের পরিচয় দিয়ে কথা বলার চেষ্টা করে। কথার উত্তর না দিয়ে নিজের ক্লাসে চলে যান ভুক্তভোগী। মেহেদী জুনিয়র হওয়া সত্ত্বেও বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে ও ফেসবুকে বিভিন্নভাবে ঘনিষ্ঠ হওয়ার চেষ্টা করতে থাকেন। কিন্তু ওই ছাত্রী তাকে পাত্তা দেননি। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) জগন্নাথ বিশ্বদ্যালয় দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করার জন্য দুপুরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আসেন ওই ছাত্রী। ক্যাম্পাসের ‘শান্ত চত্বরে’ অবস্থানকালে মেহেদী পূর্বপরিকল্পিতভাবে তাঁর যৌন কামনা চরিতার্থ করার উদ্দেশ্যে শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে স্পর্শ করে শ্লীলতাহানি করে চলে যান।

পরে ঘটনার বিষয়ে ভুক্তভোগী ছাত্রী সহপাঠীসহ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে লিখিতভাবে অভিযোগ দেন। প্রক্টরের নির্দেশক্রমে কোতোয়ালি থানা পুলিশ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে মেহেদীকে আটক করে। পরে ভুক্তভোগী ছাত্রী মামলা করলে মেহেদীকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

প্রসঙ্গত, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষার্থী শায়লা সাথী এ সময়ের জনপ্রিয় মডেল-অভিনেত্রী। মডেলিংয়ের মাধ্যমে তার শোবিজে পথচলা শুরু। এর পর কাজ শুরু করেন মিউজিক ভিডিও ও নাটকে। বর্তমানে এ অভিনেত্রী নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন ছোটপর্দায়।

পিএনএস/এএ

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন