তাইওয়ানে সামরিক অভিযানের হুমকি দিল চীন

  03-08-2022 01:29AM

পিএনএস ডেস্ক : মার্কিন কংগ্রেস স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফর ঘিরে তুমুল উত্তেজনা বিরাজ করছে। সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে চীনের সামরিক বাহিনী। যুক্তরাষ্ট্রের হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ানে সফরের প্রতিক্রিয়া হিসেবে তারা ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ শুরু করবে বলে জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে। খবর আল জাজিরার।

এদিকে পিপল’স লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) এস্টার্ন থিয়েটার কমান্ডের পক্ষ থেকে পৃথক এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তাইওয়ানের কাছেই যৌথ সামরিক মহড়া চালাবে তারা। মঙ্গলবার রাতেই এ মহড়া শুরু হবে। সেই সঙ্গে তাইওয়ানের পূর্বে সাগরে ক্ষেপণাস্ত্রও ছুড়বে বলে জানিয়েছে পিএলএ।

তাইওয়ানের বিশ্লেষকরাও তেমনটাই আশঙ্কা করছেন। তবে চীন কোনো সংঘাতে জড়াবে বলেও মনে করছেন তারা। বিশ্লেষকরা বলছেন, পেলোসির এ সফরের জবাবে চীনের প্রতিক্রিয়া স্বল্পমেয়াদি ও দীর্ঘমেয়াদি উভয়ই হতে পারে।

তাইওয়ানের একাডেমিয়া সিনিকার যুক্তরাষ্ট্র-তাইওয়ান বিষয়ক গবেষক জেমস লি বলছেন, বেইজিংয়ের পক্ষ থেকে এখন সামরিক তৎপরতা বাড়ানো হতে পারে। যেমন মহড়ার মতো করে গোলাগুলি চালানো হতে পারে। তবে সেটা এমনভাবে যাতে তাইওয়ান বা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সরাসরি সংঘাতে না জড়াতে হয়।

এদিকে নানান হুমকি-ধামকি উপেক্ষা করে তাইওয়ানে যখন ন্যান্সি পেলোসি এবং তার সফরসঙ্গীদের বিমান অবতরণ করে, তখন বিমানবন্দরের আলো কমিয়ে দেওয়া হয়। সে সময়ই তাইওয়ানের আকাশসীমার কাছে চীনা যুদ্ধবিমানের উপস্থিতি নজরে আসে। তাই নিরাপত্তার কারণেই এমনটা করা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

প্রচারিত একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা গিয়েছে, অন্ধকারে ঘেরা তাইপেই বিমানবন্দরে টর্চ জ্বালিয়ে পেলোসি এবং তার সঙ্গীদের স্বাগত জানাচ্ছেন তাইওয়ান সরকারের প্রতিনিধিরা। স্থানীয় সময় সাড়ে ১০টায় তাইওয়ানে অবতরণের পর একগুচ্ছ টুইট করেন পেলোসি।

ন্যান্সি পেলোসি লেখেন, ‘তাইওয়ানের মজবুত গণতন্ত্রের প্রতি সম্মান ও সমর্থন জানাতে আমেরিকা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তাই আমাদের প্রতিনিধিদলের এই সফর। মুক্ত এবং উদার ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল গঠনের লক্ষ্যে তাইওয়ানের প্রতি সমর্থন জানাতেই তাদের নেতৃত্বের সঙ্গে আমরা আলোচনা করবো।’

তার এ সফরের আগে দিয়ে তাইওয়ান প্রণালীয় দু’পাশেই সামরিক তৎপরতার লক্ষণ দেখা গেছে। সোমবার সকাল থেকেই চীনের যুদ্ধজাহাজগুলো তাইওয়ান প্রণালীর মাঝরেখার কাছে উপস্থিতি জানান দিয়েছে। মঙ্গলবার সকালেও চীন একই এলাকার কাছ দিয়ে জঙ্গি বিমান উড়িয়েছে। এর মধ্যে সেখানে মার্কিন যুদ্ধজাহাজও মোতায়েনের খবর পাওয়া গেছে।

এমন এক উত্তেজনার আবহেই তাইওয়ানে পা রাখলেন পেলোসি। ২৫ বছরের মধ্যে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের কোনো স্পিকারের এটিই প্রথম তাইওয়ান সফর। এর আগে ১৯৯৭ সালে রিপাবলিকান নিউ গিংরিচ তাইওয়ানে গিয়েছিলেন।

পিএনএস/এমবিবি

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন