অপহরণ করে ধর্ষণের পর পোশাক খুলে নিয়ে গেল ধর্ষকরা

  22-09-2022 03:28PM



পিএনএস ডেস্ক : কিশোরীকে অপহরণ করে দলবদ্ধধর্ষণের পর তার পোশাক নিয়ে চম্পট দিয়েছে অভিযুক্তরা। শেষমেশ নিরাবরণ হয়েই প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তা হেঁটে বাড়ি ফিরে কিশোরী।

এমনই বর্বরোচিত ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠল উত্তরপ্রদেশের মোরাদাবাদ এলাকায়।

রাস্তায় বিবস্ত্র অবস্থায় অসহায় কিশোরীকে হাঁটতে দেখেও আশপাশের কেউই তাকে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেননি বলে অভিযোগ। সকলে নীরব দর্শকের ভূমিকায় ছিলেন।

কেউ কেউ নিরাবরণ কিশোরীর ভিডিও তুলে নেটমাধ্যমে ছড়িয়েছেন। এই ঘটনার ভিডিও নেটমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তেই আলোড়ন পড়ে গিয়েছে।

সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, দু'সপ্তাহ আগে এই ঘটনা ঘটেছে। সম্প্রতি সেই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। মোরাদাবাদ-ঠাকুরদ্বারা রাস্তা ধরে হেঁটে বাড়ি ফেরে কিশোরী।

মোরাদাবাদ পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পাশের গ্রামে একটি মেলায় গিয়েছিল ওই ১৫ বছরের কিশোরী। সেখানে তাকে পাঁচ যুবক অপহরণ করেন বলে অভিযোগ। তার পর তাকে দলবদ্ধধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে ওই পাঁচ যুবকের বিরুদ্ধে। সেই সময় কিশোরীর চিৎকার শুনে ঘটনাস্থলে ছুটে যান এক গ্রামবাসী। তত ক্ষণে কিশোরীর পোশাক নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চম্পট দেয় অভিযুক্তরা।

কিশোরীর চাচা বলেছেন, ‘বাড়িতে যখন ফেরে ও, খুব রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। বাড়ি ফিরে সব কথা জানায় আমাদের।’ কিশোরীর থেকে গোটা ঘটনা জানার পর পুলিশে অভিযোগ দায়ের করতে যান তার চাচা।

কিন্তু, প্রথমে কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি বলে অভিযোগ তার। এর পরই জেলা পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হন তিনি। গত ৭ সেপ্টেম্বর এই ঘটনায় এফআইআর দায়ের করা হয়।

অভিযুক্তদের পরিবারের সদস্যরা তাকে প্রাণে মারার হুমকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন কিশোরীর চাচা। এ কথাও এফআইআরে উল্লেখ করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (গ্রামীণ) সন্দীপ কুমার মীনা বলেছেন, ‘ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ডি, পকসো আইনে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। গত ১৫ সেপ্টেম্বর এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, ক’দিন আগেই দুই দলিত বোনকে ধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ ঘিরে তোলপাড় পড়ে গিয়েছে উত্তরপ্রদেশে। সেই ঘটনায় আলোড়নের মধ্যেই মোরাদাবাদের এই ঘটনা নতুন করে সে রাজ্যের নারী নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিল। সূত্র: ইন্ডিয়া টাইমস, আনন্দবাজার

পিএনএস/আলাউদ্দিন

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন