পিপলস জুডিসিয়ারি সংখ্যালঘুসহ সবার সমান প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করে: প্রধান বিচারপতি

  09-06-2024 02:35AM

পিএনএস ডেস্ক: পিপলস জুডিসিয়ারি সংখ্যালঘুসহ সব নাগরিকের সমান প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করে এবং সংবিধান অনুযায়ী তাদের অধিকারগুলো রক্ষা করে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।

শনিবার (৮ জুন) সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়ামে একটি আন্তাজিতক কনফারেন্সে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

‘ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন জুডিসিয়ারি অ্যাক্রস দ্য ব্রর্ডার্স’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আয়োজন করে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট।

শেষ দিনে আন্তর্জাতিক সম্মেলনটির প্রথম সেশনে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান। তিনি সম্মেলনের উদ্বোধনও করেন।

প্রথম সেশনে প্রধান অতিথি ছিলেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন ভুটানের হাইকোর্টের বিচারপতি লোবজাং রিনজিন ইয়ার্গে।

সভাপতির বক্তব্যে প্রধান বিচারপতি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে ভুটান ও নেপাল কর্তৃক বাংলাদেশকে স্বাধীনতার স্বীকৃতিদানের ইতিহাস স্মরণ করিয়ে দেন।

পিপলস জুডিসিয়ারি সম্পর্কে তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি পিপলস জুডিসিয়ারি ধারণাটি এমন একটি ধারণা যা সংখ্যালঘুসহ সব নাগরিকের সমান প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করে এবং সংবিধান অনুযায়ী তাদের অধিকারগুলো রক্ষা করে।

তিনি বাংলাদেশের বিচার ব্যবস্থার মূল সমস্যা উল্লেখ করে তা থেকে উত্তরণের উপায় ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন, বাংলাদেশের আদালত আজকে চার মিলিয়ন মামলার ভারে জর্জরিত। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য আমরা গ্রাউন্ড-ব্রেকিং টেকনোলজিক্যাল ইনোভেশন সিস্টেমর ওপর ফোকাস করছি এবং মামলা নিষ্পত্তির জটিলতাগুলো সমাধানের চেষ্টা করছি।

দেশের বিচার ব্যবস্থা আধুনিকায়নে বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরে প্রধান বিচারপতি কক্সবাজারে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট স্থাপনের জন্য বাংলাদেশ সরকার জমি বরাদ্দের দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ভুটানের হাইকোর্টের বিচারপতি লোবজাং রিনজিন ইয়ার্গে বলেন, ব্যক্তির মানবাধিকার রক্ষায় আইনের শাসনের খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি শক্তিশালী গণতন্ত্রের মূলভিত্তি। দুটি গুরুত্বপূর্ণ মূলনীতি হলো কেউ আইনের উর্ধ্বে নয় এবং সবাই আইনের সমান আশ্রয় লাভের অধিকারী, বাস্তবায়ন করা নাহলে আইন ন্যায়বিচারের পরিবর্তে অবিচারের উৎস হয়ে উঠে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক মো. জাকির হোসেন।

পিআর

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন