এক প্যাকেট সিগারেট ৩০০০ টাকা!

  21-01-2020 02:44PM

পিএনএস ডেস্ক : সিগারেটের দাম আরও বাড়াতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। ধূমপানে নিরুৎসাহিত করতে এ উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে দেশটি। এ বছরে দেশটিতে সিগারেটের দাম বাড়বে অন্তত ১২ দশমিক ৫ শতাংশ।

তামাক ব্যবহার কমানোর লক্ষ্যে টানা আট বছর ধরে সিগারেটের দাম বাড়াচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার সরকার। গড়ে প্রতি প্যাকেট সিগারেটের জন্য ব্যয় করতে হবে সর্বোচ্চ সাড়ে ৪৮ অস্ট্রেলিয়ান ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় এটা দাঁড়াবে প্রায় ৩ হাজার টাকায়। এই মূল্য হবে সারাবিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ।

জানা গেছে, আগামী সেপ্টেম্বর থেকেই অস্ট্রেলিয়ায় কার্যকর হবে নতুন মূল্যহার। সেসময় এক প্যাকেট মার্লবোরো গোল্ড সিগারেটের দাম হতে পারে অন্তত ৪৮ দশমিক ৫০ ডলার।

সবচেয়ে কম দামি সিগারেটও প্রতি প্যাকেটে খরচ পড়বে অন্তত ২৯ ডলার। যাদের দিনে অন্তত এক প্যাকেট সিগারেট লাগে, এই বদঅভ্যাসের কারণে তাদের এক বছরে ১০ হাজার ডলার খরচ হবে।

শুধু তাই নয়, এক প্যাকেট খোলা তামাকের দাম আর সিগারেটের দাম থাকবে প্রায় সমান।

অস্ট্রেলিয়ান ব্যুরো অব স্ট্যাটিসটিকস বলছে, প্রতিবছর সিগারেটের দাম বাড়লেও ২০১৪-১৫ থেকে ২০১৭-১৮ সাল পর্যন্ত প্রাপ্তবয়স্কদের ধূমপানের হার কমেছে মাত্র ০.৭ শতাংশ। তবে ১৯৯৫ সালে ধূমপানের হার ছিল ২৩ দশমিক ৮ শতাংশ, যা ২০১৭-১৮ সালে কমে দাঁড়িয়েছে ১৩ দশমিক ৮ শতাংশ।

তবে নিউ সাউথ ওয়েলসের স্কুল অব পাবলিক হেলথের ড. কলিন মেনডেলসন জানান, সাম্প্রতিক সময়ে অস্ট্রেলিয়ায় সিগারেটের মূল্যবৃদ্ধি ধূমপানের হার কমানোয় আর ততটা প্রভাব ফেলছে না।

বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মতে, ধূমপায়ীদের ধূমপানে নিরুৎসাহিত করতে এবং শিশুদের এই বাজে অভ্যাস গড়ে ওঠা থেকে বিরত রাখতে সবচেয়ে কার্যকর পন্থা হচ্ছে সিগারেটের মূল্যবৃদ্ধি।

সূত্র : ডেইল মেইল

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন