কদমতলীর ট্রিপল মার্ডার : মেহজাবিনের স্বামী শফিকুল ৩ দিনের রিমান্ডে

  21-06-2021 08:43PM

পিএনএস ডেস্ক : রাজধানীর কদমতলী থানার মুরাদপুরের হাইস্কুল রোডের একটি বাসা বাবা-মা ও বোনকে হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার ওই দম্পতির বড় মেয়ে মেহজাবিন ইসলাম মুনের স্বামী শফিকুল ইসলাম অরণ্যের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম শহিদুল ইসলাম শুনানি শেষে এ রিমান্ডের আদেশ দেন।

এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কদমতলী থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) জাকির হোসাইন এ আসামিকে আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, আসামিকে হাসপাতাল থেকে থানায় এনে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি মামলা সংক্রান্ত বেশ কিছু তথ্য প্রদান করেন। তবে কি কারণে, কেন? কী উদ্দেশ্যে ভিকটিমদের নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে এবং এ ঘটনার সঙ্গে আর কেউ জড়িত ছিল কিনা সে সম্পর্কে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন। শফিকুল তার স্ত্রীর সহযোগিতায় পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক তার শ্বশুর, শাশুড়ী ও শ্যালিকাকে নেশাজাতীয় দ্রব্য সেবন করিয়ে অচেতন পূর্বক নির্মমভাবে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে। মামলাটি কদমতলী থানার একটি আলোচিত হত্যা মামলা। মামলার সুষ্ঠু তদন্ত ও ন্যায়বিচারের স্বার্থে আসামিকে সাত দিনের রিমান্ড করা প্রয়োজন।

শুনানিকাল শফিকুলের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না। তাই বিচারক আসামিকে কিছু বলার আছে কি না জানতে চান। তখন শফিকুল নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন। এরপর আদালত তিন দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

এর আগে গত রোববার ওই দম্পতির বড় মেয়ে মেহজাবিন ইসলাম মুনের ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত। ওই দিন মুন সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একাই মা, বাবা ও বোনকে হত্যা করেছে বলে জানান।

এর আগে গত ১৯ জুন রাজধানীর কদমতলী থানার মুরাদপুরের হাইস্কুল রোডের একটি বাসা থেকে মাসুদ রানা, মৌসুমি ইসলাম এবং মোহনীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই ঘটনায় মাসুদ রানার বড় ভাই সাখাওয়াত হোসেন মেহজাবিন ইসলাম মুন এবং তার স্বামী শফিকুল ইসলাম অরন্যকে আসামি করে কদমতলী থানায় মামলা দায়ের করেন।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন