সাতসকালে রাজধানীতে ঝুম বৃষ্টি

  22-06-2024 10:18AM



পিএনএস ডেস্ক: রাজধানীতে সাতসকালে নেমে আসে রাতের আঁধার, কালো মেঘে ছেয়ে যায় পুরো আকাশ। আর প্রবল বেগে বইতে শুরু করে ঝোড়ো হওয়া, তার মাঝেই আকাশের বুক চিরে নেমে আসে বারিধারা। এতে কাজের প্রয়োজনে বের হওয়া নগরবাসী পড়েছেন ভোগান্তিতে। বিশেষ করে রাতে দেশের বিভিন্ন গন্তব্য থেকে ঢাকায় ফেরা মানুষ বাস টার্মিনাল, রেলস্টেশন, লঞ্চঘাটে আটকে পড়েছেন।

শনিবার (২২ জুন) সকাল আটটার পরপরই বৃষ্টি শুরু হয়। রাজধানীর কারওয়ান বাজার, পান্থপথ, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর, আগারগাঁও, ফার্মগেট, হাতিরঝিল, মিরপুর, গুলিস্তান ও নিউমার্কেট এলাকায় বৃষ্টি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে বৃষ্টির পরিমাণ কোথাও কম আবার কোথাও বেশি।

বৃষ্টিতে বাইরে থাকা মানুষজন পড়েছেন বিপাকে। বিশেষ করে, যারা রাতের বেলা দেশের বিভিন্ন গন্তেব্য থেকে ঢাকায় ফিরেছেন তারা আটকে পড়েছেন বাস টার্মিনাল, রেলস্টেশন, লঞ্চঘাটে।

এ ছাড়া অফিসগামী বা শ্রমজীবীরা অধিকাংশ মানুষ বের হননি। কারণ, ঈদের রেশ এখনও কাটেনি। অধিকাংশ সরকারি অফিস আগামীকাল থেকে পুরোদমে শুরু হবে। যদিও কিছু কিছু বেসরকারি অফিস আজ খোলা থাকায় কর্মজীবীদের কেউ কেউ বিড়ম্বনায় পড়েছেন।

নিশীতা মিতু নামে একজন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লিখেছেন, এমন ঝুম বৃষ্টির সকালে স্কুলের দিনগুলো খুব মনে পড়ে। বৃষ্টির মাত্রা যতই হোক, স্কুলে যাওয়া চাই-ই চাই। কাকভেজা হয়ে, জুতার ভেতর পানি নিয়ে হাজির হতাম স্কুলে। বৃষ্টির কারণে ক্লাসের বেশির ভাগ ছাত্রীই আসত না। স্যার-ম্যাডামরা তাই অঘোষিত ছুটি দিতেন কিংবা ক্লাসে এসেও পড়াতেন না। গান, কবিতা কিংবা আড্ডায় কাটতো দিন। ভেজা জুতা-মোজা খুলে পুরো স্কুল টহল দেওয়া ছিল প্রিয় কাজ। হায় আমার স্কুলের দিন, কেন হারিয়ে গেলে?

আবার কেউ কেউ বৃষ্টি বিড়ম্বনায় পড়ার কথা শেয়ার করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। অফিসে আসার পথে বৃষ্টির কারণে চায়ের দোকানে আশ্রয় নেওয়া আসাদুজ্জামান নামে একজন ফেসবুকে বৃষ্টির কয়েকটি ছবি শেয়ার করেছেন। স্ট্যাটাসে লিখেছেন, শ‌খের বৃ‌ষ্টি কখ‌নো কখ‌নো‌ বিড়ম্বনারও কারণ হয়।

শনিবারের আবহাওয়ার বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়; রাজশাহী ও ঢাকা বিভাগের অনেক জায়গায় এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

সেই সঙ্গে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি বা ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে। তবে শনিবার সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।


পিএনএস/আনোয়ার

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন