বাসর রাতে বরের আত্মহত্যা!

  25-09-2021 06:41PM

পিএনএস ডেস্ক: একাকিত্ব কাটাতে পারিবারিকভাবে সাবিনা ইয়াসমিনকে (১৮) বিয়ে করেন বাবুল হোসেন (২৩) নামে এক যুবক। তবে বাসর রাতে পরিবারের সদস্যরা তাকে নিজ শয়ন ঘরে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে রান্নাঘরে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে। তবে মৃত্যুটি রহস্যজনক বলে ধারণা করছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলা চিলাহাটি ইউনিয়নের চরতিস্তাপাড়া এলাকায়।

মৃত বাবুল হোসেন একই এলাকার শফিকুল ইসলামের ছেলে। পুলিশ শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতন্দের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বর সেজে বাবুল বিয়ে করতে যান বোদা উপজেলার বড়শশী ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া এলাকায়। ওই এলাকার সমার উদ্দীনের মেয়ে সাবিনা ইয়াসমিনের সঙ্গে রাতে বিয়ে সম্পন্ন করে নববধূকে নিয়ে নিজ বাড়িতে ফিরে আসেন বাবুল। এদিকে বাড়িতে মেহমান থাকার জন্য অন্য ঘর না থাকায় এক ঘরেই মেয়ে-ছেলে, মেয়ের দাদী (দানিবুড়ি), ছেলের ভগ্নিপতি (হুসেইন) ছোট ছোট দুটো বাচ্চা সহ ঘুমান। পরে হঠাৎ গভীর রাতে বরকে দেখতে না পেয়ে খুঁজতে গেলে পাশেই রান্নাঘরের দড়ি দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখেন। এসময় নববধূর চিৎকারে সবাই দৌঁড়ে এসে বাবুলকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান।

এদিকে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই স্থানীয়দের সহযোগিতায় পরিবারের লোকজন মরদেহটি ঝুলন্ত অবস্থা থেকে নামিয়ে আনে। পরে সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহের প্রাথমিক সুরতহাল শেষে শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল হোসেন বলেন, মৃত্যুটি আমাদের কাছে রহস্যজনক মনে হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ না পাওয়ায় থানায় অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পিএনএস/জে এ

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন