'চোর' সন্দেহে জামাইকে পিটিয়ে হত্যা!

  02-12-2023 10:57PM

পিএনএস ডেস্ক : কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মাইজখাপন ইউনিয়নে চোর সন্দেহে জামাইকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগে উঠেছে।

শনিবার (২ ডিসেম্বর) দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় খোকন মিয়া মারা যান। নিহত খোকন মিয়ার বোন বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় এ অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন।

জানা যায়, নিহত খোকন মিয়া (৪৫) সুন্ধিরবন এলাকার মৃত লাল মিয়ার ছেলে।

স্থানীয়রা বলছেন, ২০ বছর আগে মাইজখাপন ইউনিয়নের পাঁচধা এলাকায় বিয়ে করেন নিহত খোকন মিয়া। তাদের পরিবারে তিনটি সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিভিন্ন বিষয়ে ঝগড়া লেগেই থাকতো। স্ত্রী-সন্তান শ্বশুরবাড়িতে থাকায় শুক্রবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে ঢাকা থেকে এসে খোকন মিয়া তার শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে ওঠেন।

এ সময় দরজায় নক করলে শ্বশুরবাড়ির লোকজন চোর সন্দেহে খোকন মিয়াকে আটক করে বেঁধে রেখে রাতভর হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে নির্যাতন চালান। সকালে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় স্থানীয়রা নিহত খোকনকে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। শনিবার (২ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় খোকন মিয়া মারা যান। তার শরীরে বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ দাউদ জানান, নিহত খোকন কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ ঘটনায় নিহতের বোন বাদী হয়ে ১১ জনকে অভিযুক্ত করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় অভিযুক্ত নিহত খোকনের শ্যালককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যান্য আসামিদের ধরতে পুলিশ কাজ করছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে নিহতের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান ওসি।

পিএনএস/এএ

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন