রিজার্ভ থেকে ২০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ দেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক

  

পিএনএস ডেস্ক: দেশের পোশাক ও চামড়া খাতের শিল্প কারখানায় পরিবেশবান্ধব সবুজায়নের লক্ষ্যে ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দেওয়া হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থেকে এ ঋণ দেওয়া হবে।

দীর্ঘমেয়াদে এই অর্থ ব্যাংকগুলোকে প্রদানের লক্ষ্যে ‘গ্রিন ট্রান্সফরমেশন ফান্ড ফর এক্সপোর্ট-ওরিয়েন্টেড টেক্সটাইল অ্যান্ড টেক্সটাইল প্রডাক্টস্ অ্যান্ড লেদার ম্যানুফাচারিং ইন্ডাস্ট্রিজ’ নামে একটি তহবিল গঠন করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এর আওতায় বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় ব্যাংক বেসরকারি খাতের ছয় ব্যাংকের সঙ্গে অংশগ্রহণমূলক একটি চুক্তি সই হয়েছে।

ব্যাংকগুলো হলো: ইস্টার্ন ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক এবং সাউথইস্ট ব্যাংক। শিগগিরই আরো কিছু ব্যাংকের সঙ্গেও একইরকম চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে বলে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এস. কে. সুর চৌধুরী বলেন, অংশগ্রহণকারী ব্যাংকগুলো দীর্ঘমেয়াদি এই তহবিল যথাযথভাবে ব্যবহার করে শিল্প খাতের উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি রপ্তানি খাতের পূর্ণমাত্রার সম্প্রসারণ ঘটাতে সক্ষম হবে। তবে এই উন্নয়ন প্রচেষ্টায় পরিবেশগত কোনো ঝুঁকির সৃষ্টি না হয়, সেই দিকে কঠোর নজর রাখার ব্যাপারেও সতর্ক থাকার নির্দেশ দেন তিনি। দেশজ উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে টেকসই উন্নয়নের এই প্রচেষ্টায় দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধি ত্বরান্বিত হবে বলে তিনি আশা ব্যক্ত করেন।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলেছেন, টেক্সটাইল ও টেক্সটাইল পণ্য এবং লেদার বাংলাদেশের শীর্ষ রপ্তানিমুখি খাতগুলোর অন্যতম। অপরদিকে এ দু’টি খাত পরিবেশগত ও সামাজিক ঝুঁকি বিবেচনায় সংবেদনশীল উৎপাদনশীল খাত হিসেবে বিবেচিত। বিগত দেড় দশকেরও বেশি সময় ধরে সারা বিশ্বেই ব্যবসায় চর্চার মধ্যে পরিবেশ ও সামাজিক উপাদানগুলোর সক্রিয় বিবেচনা ‘বিজনেস ব্র্যান্ডিং’ এর অন্যতম নিয়ামক হিসেবে পরিগণিত হয়।

বিশ্বব্যাপী এখন খুচরা বিক্রেতারা পর্যন্ত এসব বিষয়ে সচেতন। ফলে বাংলাদেশের রপ্তানিমুখি টেক্সটাইল ও টেক্সটাইল প্রডাক্টস্ এবং লেদারখাতে বৈশ্বিক ক্রেতারা এখন উৎপাদন পর্যায়ে পরিবেশগত ও সামাজিক পরিপালনের বিষয়ে অত্যন্ত নিয়মতান্ত্রিক ও কঠোর। ফলে বাংলাদেশের রপ্তানিমুখি টেক্সটাইল ও টেক্সটাইল প্রডাক্টস্ এবং লেদার খাতের পরিবেশগত ও সামাজিক পরিপালনের মান বৈশ্বিক পর্যায়ে উন্নীতকরণ অত্যাবশ্যক।

এস. কে. সুর চৌধুরীর সভাপতিত্বে আয়োজিত চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ইস্টার্ন ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক এবং সাউথইস্ট ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাসটেইনেবল ফাইন্যান্স ডিপার্টমেন্টের মহাব্যবস্থাপক মনোজ কুমার বিশ্বাসসহ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech