ইসলাম

ঈদের নামাজ পড়ার নিয়ম

  

পিএনএস ডেস্ক : ঈদ আরবি শব্দ, এর আভিধানিক অর্থ খুশি বা আনন্দ। ঈদ বলতে ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা বা কুরবানীর ঈদকে বুঝায়। দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনের পর শাওয়াল মাসের প্রথম দিন যা ঈদুল ফিতর নামে পরিচিত। আর একটি যিলহজ্জ মাসের দশ তারিখ যা ঈদুল আযহা বা কুরবানীর ঈদ। বছরে আমাদের দুই বার ঈদগাহে ঈদের নামাজ পড়ার জন্য যেতে হয়। দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হওয়ার কারণে আমাদের অনেকেই ঈদের নামাজের নিয়মগুলো ভুলে যায়। আসুন জেনে নেই ঈদের নামাজের নিয়মগুলো-ঈদের নামাজ :ঈদের নামাজ দুই রাকাআত। ঈদের নামাজ আদায় করা ওয়াজিব।

জেনে নিন রোজাদারদের জন্য ১১টি জরুরি পরামর্শ!

  

পিএনএস ডেস্ক : রহমত, মাগফিরাত ও নাজাত। এই তিনভাগে পবিত্র রমজান মাসকে ভাগ করা হয়েছে। রমজান হলো প্রশিক্ষণের মাস। মহান আল্লাহ চান তাঁর বান্দা তাঁর গুণাবলি অর্জন করে সেই গুণে গুণান্বিত হোক। হাদিস শরিফে রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘তোমরা আল্লাহর গুণে গুণান্বিত হও।’ প্রত্যেক মুমিন ব্যক্তিই এই রমজান মাসে সারা বছরের নেকি ও পূণ্যের ঘাটতি পূরণের প্রাণান্তকর চেষ্টা করে থাকেন। ইবাদতের মাধ্যমে রহমতের ১০ দিন অতিবাহিত করার পর মুমিন ব্যক্তিরা মাগফিরাত লাভের আশায় আল্লাহ পাকের দরবারে নিজেকে নতুন করে নিয়োজিত

রমজানে নারীদের ইবাদত

  

পিএনএস ডেস্ক : তারাবির জামাতেও নারীরা অংশগ্রহণ করতে পারেন। খতমে তারাবির জামাতে তাদের অংশগ্রহণের জন্য মসজিদগুলোতেও তাদের বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেতে পারে। যেসব এলাকার মসজিদে এসব ব্যবস্থা নেই অথবা নারীরা যদি রাতের বেলা মসজিদে গিয়ে খতমে তারাবির জামাতে অংশগ্রহণ করতে নিরাপদ ও স্বস্তি বোধ না করেন, সে ক্ষেত্রে তারা নিজেরা মিলে মহল্লায় বা পাড়ায় পৃথক খতমে তারাবির জামাতের ব্যবস্থা করে নিতে পারেন ইসলামি প্রতিটি বিধানই নারী-পুরুষের জন্য সমানভাবে প্রযোজ্য এবং সমান গুরুত্বপূর্ণ। সওয়াবের ক্ষেত্রেও

আল আকসাতে ২ লাখ ২০ হাজার ফিলিস্তিনির জুমার নামাজ আদায়

  

পিএনএস ডেস্ক : রমজান মাসের দ্বিতীয় শুক্রবার আল আকসা মসজিদে নামাজ আদায় করেছে ২ লাখ ২০ হাজার ফিলিস্তিনি। ৪০ ঊর্ধ্ব পুরুষ, ১২ বছরের কম বয়সী শিশু ও সকল বয়সের নারীদের এদিন জুমার নামাজ আদায় করার সুযোগ দেয় ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ। এদিন ইসরায়েল অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমে অবস্থিত এই মসজিদে আসতে করতে কোনো অনুমতির দরকার হয়নি।জর্ডানের সংস্থা জেরুজালেম ইসলামিক ওয়াকফের মুখপাত্র ফিরাজ আল দিব্স বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, জুমার নামাজ আদায় করতে আসা এসব মুসল্লিদের মধ্যে ১ লাখ মুসল্লি আল আকসায় মাগরিবের নামাজ

ইফতারের আগে এই দোয়াটি বেশি বেশি পড়ুন

  

পিএনএস ডেস্ক : রোজাদারের জন্য সাহরি খাওয়া ও ইফতার করা সুন্নাত। বিশেষ কিছু না পেলে সামান্য খাদ্য বা কেবল পানি পান করলেও ইফতারের সুন্নাত আদায় হয়ে যাবে।ইফতার খুরমা কিংবা খেজুর দ্বারা করা সুন্নাত। তা না পেলে পানি দ্বারা ইফতার করবে। ইফতার আয়োজনে অপচয় বা লোক দেখানো বিষয়গুলো এড়িয়ে চলাই ভালো।ইফতারের পূর্বে এ দোয়াটি বেশি বেশি পড়তে হবেيَا وَا سِعَ الْمَغْفِرَةِ اِغْفِرْلِىْউচ্চারণ: ইয়া ওয়াসিয়াল মাগফিরাতি, ইগফিরলী।অর্থঃ হে মহান ক্ষমা দানকারী! আমাকে ক্ষমা করুন। (শু‘আবুল ঈমান:

যা করলে সব গুনাহ মাফ হয়ে যায়!

  

পিএনএস ডেস্ক : পরম করুণাময় মহান আল্লাহ তাআলা মানুষকে পূণ্য বা সাওয়াব দানের ব্যাপারে অনেক বেশি আগ্রহী। মানুষ যে কোনো আমলই করবে তার পরিবর্তে আল্লাহ তাআলা তাকে বেশি বেশি প্রতিদান দিতে চান। আবার কেউ যদি মন্দ কাজ করে ফেলে তবে তাকে তার মন্দ কাজ অনুযায়ী প্রতিদান দিয়ে থাকেন, তাতে কম-বেশি করেন না।আল্লাহ তাআলা এ কথার সমর্থনে পবিত্র কোরানে ঘোষণা করেছেন, ‘কেউ সৎ কাজ করলে, সে তার দশ গুণ (প্রতিদান) পাবে, (পক্ষান্তরে) কেউ অসৎ কাজ করলে, তাকে শুধু তার সমপরিমাণ প্রতিফলই দেয়া হবে।’ (সুরা আনআম : আয়াত

ঘরোয়া কাজে নারীকে সহায়তা করা সুন্নত

  

পিএনএস ডেস্ক : সহমর্মিতার মাস রমজান। পারস্পরিক সহযোগিতা ও সহায়তার মাধ্যমে এ মাসের ইবাদতসমূহ যথাযথভাবে পালন করা সম্ভব। রাসুল (সা.) বলেন, রমজান মাস হলো সহানুভূতি ও সহমর্মিতার মাস। (শুয়াবুল ঈমান ৩৩৩৬, সহিহ ইবনে খুযাইমা ১৮৮৭)নারীদের ক্ষেত্রে রমজানে ঘরোয়া কাজে কিছু বাড়তি আয়োজন থাকে, সংসারের অন্যান্য দায়িত্ব ছাড়াও ইফতারি এবং রাতের খাবারের ব্যবস্থা করতে হয়। অন্যদিকে রোজার দীর্ঘ উপবাসের কারণে অবসাদ ও ক্লান্তিও থাকে শরীরজুড়ে। তাই এ মাসে নারীদের ঘরের কাজে পুরুষের কিছুটা সহায়তা অনেকটা স্বস্তি

পুরো রমজান জুড়ে যে ৪টি আমলের নির্দেশ দিয়েছেন রাসুলুল্লাহ (সা.)

  

পিএনএস ডেস্ক: পবিত্র মাহে রমজান আত্মশুদ্ধি অর্জনের মাস। অনেক মর্যাদা ও ফজিলতপূর্ণ মাস। এ মাসে মহান আল্লাহ বান্দার প্রতি অবিরত রহমত ও বরকত নাজিল করেন। মাগফেরাত ও নাজাত দান করেন।মানবতার মুক্তির জন্য বিশ্বনবী (সা.) রমজানে চারটি আমল করার নির্দেশ দিয়েছেন, সে বিষয়গুলো তুলে ধরা হলো-এই মাস কল্যাণময় মাস। এ মাসে পবিত্র আল-কোরআন নাজিল হয়েছিল। এ মাস তাকওয়া ও সংযম প্রশিক্ষণের মাস। এ মাস সবরের মাস। এ মাস জীবনকে সব পাপ-পঙ্কিলতা থেকে মুক্তি দেয়।আল্লাহপাক পবিত্র কালামে ঘোষণা করেন, ‘হে ঈমানদারগণ,

জাকাতের নামে নিম্নমানের কাপড় বিক্রি ও বিতরণকারীদের অভিযানের আওতায় আনা জরুরি

  

পিএনএস (মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান) : নির্দিষ্ট পরিমাণ সম্পদ যাদের আছে, জাকাত দেওয়া তাদের জন্য ফরজ বা অপরিহার্য। সমাজ থেকে দারীদ্র্য দূর করার এটা উৎকৃষ্ট উপায়। আমাদের সমাজে জাকাতের নামে যা হচ্ছে, সেটাকে তামাশা বললেও কম বলা হবে। দুঃখজনক হলেও সত্য, দারিদ্র্য দূরীকরণের ঐশ্বরিক এই কল্যাণকর দিকটিকে নিয়ে একধরনের মানুষ নৈরাশ্যজনক আচরণ করছে।জাকাত আরবি শব্দ। জাকাতের আভিধানিক অর্থ : পূত-পবিত্রতা, পরিশুদ্ধি-পরিচ্ছন্নতা, সুচিন্তা এবং প্রবৃদ্ধি ক্রমবৃদ্ধি। যে ব্যক্তি সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপা

মুসলমানের ছেলে টুপি মাথায় দিয়ে মসজিদে যেতে বাধা কোথায়?

  

পিএনএস (মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান) : ‘শিশু/বাচ্চাদের নিয়ে মসজিদে প্রবেশ নিষেধ’ এ রকম ব্যানার লিখে বাচ্চাদের মসজিদে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করে উত্তরা ১০ নং সেক্টর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ কর্তৃপক্ষ। এ নিষেধাজ্ঞার ব্যানার ফেসবুকে ভাইরাল হলে এর সমালোচনা বাড়তে থাকে। পরে ব্যাপক সমালোচনার মুখে ওই তাদের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়।বাচ্চাদের মসজিদে আসতে বাধা দেওয়া কোনোমতেই উচিত নয়। বরং তাদের মসজিদে আসতে উৎসাহব্যাঞ্জক কার্যক্রম গ্রহণ করা অধিক যুক্তিযুক্ত। বাচ্চারা মসজিদে না এলে আগামী দিনে মসজিদে

Developed by Diligent InfoTech