ভল্টের স্বর্ণ : শুল্ক গোয়েন্দার ভুল দেখছে বাংলাদেশ ব্যাংক

  

পিএনএস ডেস্ক : ভল্টে রক্ষিত স্বর্ণ নিয়ে প্রকাশিত সংবাদ সত্য নয় বলে দাবি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের কনফারেন্স হলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক মো. রবিউল হাসান এ কথা জানান। তিনি বলেন, ভল্ট থেকে স্বর্ণ হেরফের হওয়ার কোনও সুযোগ নেই। একই সঙ্গে প্রকাশিত সংবাদটি বস্তুনিষ্ঠ নয়। সংবাদ সম্মেলনে রবিউল হাসান বলেন, শুল্ক গোয়েন্দার রিপোর্টের সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিপোর্টে মেশিন ও ম্যানুয়ালি পরিমাপের কারণে হেরফের হয়েছে। এ ছাড়া ৮০ কে ভুলক্রমে ৪০ লেখা হয়েছে।

রবিউল হাসান বলেন, বাংলোদেশ ব্যাংকের ভল্টের ভেতরে কেউ প্রবেশ করতে পারে না। যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদনক্রমে তিন থেকে চার স্তরের নিরাপত্তা পেরিয়ে ভল্টের ভেতরে যেতে হয়। সুতরাং ভল্ট থেকে স্বর্ণ ভেতরে থেকে বাইরে এবং বাইরে থেকে ভেতরে আনা সম্ভব না। বাংলাদেশ ব্যাংকের কারেন্সি অফিসার (সিইও) আনোয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন, শুল্ক গোয়েন্দা নিজেদের অ্যাসেসমেন্টের ভেতর রিপোর্টটি তৈরি করেছেন। এ রিপোর্টটিতে ভুল থাকতে পারে।

তারা বাইরে থেকে মেশিন নিয়ে পরিমাপ করেছে। আমরা তৃতীয় পক্ষ আনবিক শক্তি কমিশনের মাধ্যমে পুনরায় পরিমাপ করার জন্য আবেদন করি। কিন্তু তাতে তারা রাজি হয়নি। তারা যে রিপোর্ট বাংলাদেশ ব্যাংকে পাঠিয়েছে সে রিপোর্টের আপত্তিগুলোর জবাব বাংলাদেশ ব্যাংক দিয়েছে।

আনোয়ার হোসেন চৌধুরী আরও বলেন, ভল্টে স্বর্ণ সংরক্ষণে কোনো ব্যত্যয় ঘটেনি। পৃথিবীর এমন কোনো মেশিন নেই যা দিয়ে স্বর্ণের মান সঠিকভাবে পরিমাপ করা যায়। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের জিএম আবুল কালাম আজাদ।

তিনি বলেন, এটা শুল্ক গোয়েন্দার নিজস্ব রিপোর্ট। এই রিপোর্টের সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের কোনো সর্ম্পক নাই। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) মেশিনের সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের মেশিনের মাপের পার্থক্য হয়। এই মেশিন নিয়ে সন্দেহ আছে। যেসব স্বর্ণ নিয়ে অভিযোগ তোলা হয়েছে, তা তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে যাচাই করার আবেদন করা হয়েছে।

পিএনএস/ জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech