সবজিতে স্বস্তি, মাছ-মাংসে আগুন!

  

পিএনএস, বরিশাল প্রতিনিধি : শীতের সবজির পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকলেও বাজারে দাম কমছিল না ব্যবসায়ীদের অজুহাতের কারণে। তবে বরিশালের বিভিন্ন সবজি-বাজারে সপ্তাহের ব্যবধানে দাম কমেছে সব ধরনের সবজির। তবে আগের চেয়ে বাড়তি দামে বিক্রি হতে দেখা গেছে বিভিন্ন ধরনের মাছ। অপরিবর্তিত আছে আগে থেকেই উচ্চমূল্যের মাংসের দাম। এছাড়া অপরিবর্তিত আছে ডিম, ডাল, চাল, চিনি, ভোজ্যতেলসহ অন্যান্য পণ্যের দর।

শুক্রবার সকালে বরিশালের চৌমাথা বাজার, বটতলা বাজার, নতুন বাজার, বড় বাজার, পোট রোড বাজার, চরকাউয়া বাজার বাংলা বাজারসহ বেশ কয়েকটি কাঁচা বাজার ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে। গত সপ্তাহ থেকে ২০ টাকা কমে কেজিপ্রতি শিম (কালো) বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা, শিম (সাদা) ৪০ থেকে ৫০ টাকা, টমেটো ৬০ থেকে ৭০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৫০ থেকে ৬০ টাকা, বেগুন ৪০ থেকে ৫০ টাকা দরে। নতুন আলু কেজিতে ১৫ থেকে ৩০ টাকা পর্যন্ত কমেছে। এছাড়া আকারভেদে প্রতি পিস বাঁধাকপি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা, ফুলকপি ৩০ থেকে ৫০ টাকা, লাউ ৪০ থেকে ৫০ টাকা, জালিকুমড়া ৩০ থেকে ৪০ টাকায়। সবজি দাম কমলেও বেশ বাড়তি দামেই বিক্রি হচ্ছে মাছ। এসব বাজারে প্রতি কেজি (এক কেজি আকারের) ইলিশ বিক্রি হচ্ছে এক হাজার থেকে এক হাজার ৫০ টাকায়, ৮০০ থেকে ৯০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা কেজি দরে। শিং ৩৫০ থেকে ৬৫০ টাকা, পাবদা ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা, চিংড়ি ৫০০ থেকে ৮৫০ টাকা, রুই (আকারভেদে) ২৮০ থেকে ৩৫০ টাকা, পাঙ্গাস ১৪০ থেকে ১৭০ টাকা, তেলাপিয়া ১৪০ থেকে ১৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হতে দেখা গেছে। এছাড়া মুরগি ও মাংসের বাজার অপরিবর্তিত আছে। এসব বাজারে প্রতি কেজি ব্রয়লার ১২৫ থেকে ১৮০ টাকা, লেয়ার ১৭০ থেকে ২০০ টাকা, এছাড়া গরুর মাংস ৫৫০ টাকা, খাসি ৭৮০ টাকা, বকরি ৭২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

পিএনএস/মো. শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন