তুরস্কে অভ্যুথান চেষ্টায় চাকরিচ্যুত আরও সাত হাজার

  

পিএনএস ডেস্ক: অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার এক বছরের মাথায় ৭ হাজারেরও বেশি পুলিশ কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারি ও শিক্ষককে চাকরিচ্যুত করল তুরস্ক সরকার।

তালিকাভুক্তদের মধ্যে ২৩০৩ জন পুলিশ কর্মকর্তা, ৩০২ জন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক রয়েছেন। এছাড়া ৩৪২ জন অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সৈন্যও রয়েছেন।

গত বছরের অভ্যুত্থান প্রচেষ্টাকে ঘিরে সৃষ্ট অস্থিরতার প্রতিক্রিয়া হিসেবে বিচার বিভাগ, পুলিশ ও শিক্ষাসহ রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানসমূহে চাকুরিচ্যুতির মাধ্যমে এ শুদ্ধি অভিযান চালায় দেশটি। সর্বশেষ ৫ জুন থেকে চাকরিচ্যুতদের একটি তালিকাসমেত শুক্রবার সরকারি গেজেট প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়েছে, ‘যাদেরকে বরখাস্ত করা হয়েছে তারা রাষ্ট্রবিরোধী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত এবং সন্ত্রাসী সংগঠনের সদস্য। ’

প্রসঙ্গত, এরই মধ্যে অভ্যুত্থানের প্রচেষ্টার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে তুরস্ক ইতোমধ্যে দেড় লাখেরও বেশি কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করেছে এবং সামরিক, পুলিশ ও অন্যান্য সেক্টর থেকে ৫০ হাজারেরও বেশি ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে।

এ ব্যাপারে তুর্কি সরকার বলছে, নিরাপত্তা হুমকি মোকাবেলা করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে এদেরকে চাকরিচ্যুত ও গ্রেফতার করা হয়েছে। কিন্তু সমালোচকদের মতে, এর্দোগান তার রাজনৈতিক বিরোধী শক্তিকে কন্ঠরোধ করতে এ ব্যর্থ অভ্যুত্থানকে ব্যবহার করছেন।

উল্লেখ্য, গত বছর ১৫ জুলাই-এ ঘটে যাওয়া বড় ধরনের অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার এক বছর পূর্ণ হল আজ। ২০১৬ সালের এ দিনে বিদ্রোহকারী সৈন্যরা বিভিন্ন স্থাপনা ও নাগরিকদের ওপরে বোমা বর্ষণ ও গুলি চালায়। এ সময় সাধারণ নাগরিকরা এ অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে এলে সৃষ্ট সহিংসতায় ২৫০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়।

সূত্র: বিবিসি


পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech