মালিতে জাতিগত সহিংসতায় ১৫ বেসামরিক নাগরিক নিহত

  



পিএনএস ডেস্ক: জাতিগত বিরোধীদের হামলায় দক্ষিণ আফ্রিকার দেশ মালি’র মধ্যাঞ্চলে ফুলানি জাতিগোষ্ঠীর ১৫ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। বুধবার দেশটির মধ্যাঞ্চলীয় একটি গ্রামে প্রতিপক্ষ আদিবাসী যুবকরা বন্দুক হামলা চালালে এ নিহতের ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

শনিবার মালির আঞ্চলিক গভর্নরের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, জাতিগত সংঘাতের কারণে চলতি বছরে দেশটিতে কয়েক শত মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। ঘরছাড়া হয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। দেশটিতে বেশকিছু সশস্ত্র গোষ্ঠী রয়েছে। এদের মধ্যে সহিংস জাতিগত গোষ্ঠির পাশাপাশি বেশ কয়েকটি উগ্রপন্থি গোষ্ঠীও সক্রিয়।

জাতিসংঘের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, মালির মপতি অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি জাতিগত সহিংসতার ঘটনায় মানবিক বিপর্যয় তৈরি হয়েছে। মপতির গভর্নর সিদি আলাসানে বলেছেন, সাম্পতিক হামলার ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার।

এছাড়াও দেশটির উত্তরাঞ্চল ভয়াবহ নিরাপত্তা ঝুকিতে রয়েছে। এ অঞ্চলে বিদ্রোহীদের হামলা নিত্তনৈমিত্তিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে। গত সেপ্টেম্বরে নাইজার সীমান্ত সংলগ্ন মেনেকা অঞ্চলের একটি গ্রামে বন্দুক হামলায় ১৬ জন নিহত হয়।

২০১২ সালে মালির উত্তরাঞ্চলের মরুভূমি এলাকাগুলো দখল করে রাজধানী বামাকোর দিকে এগিয়ে আসছিল আল কায়েদার সঙ্গে সম্পর্কিত জঙ্গিগোষ্ঠীগুলো। তাদের প্রতিরোধ করতে ২০১৩ সালে মালিতে হস্তক্ষেপ করে ফ্রান্স। তবে আল-কায়েদা ও আইএস সংশ্লিষ্ট গোষ্ঠীগুলো সেখানে এখনও সক্রিয় রয়েছে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech