‘আমরা প্রস্তুত ইট মারলে পাটকেল ছুড়ব’

  




পিএনএস ডেস্ক: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে প্রকাশ্য চ্যালেঞ্জ দিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, মোদিকে উপযুক্ত শিক্ষা দেয়ার সময় এসে গেছে। মোদির ছোড়া ইটের জবাব আমরা পাথর দিয়ে দেব।

বুধবার আজাদ কাশ্মীরের মুজাফফরাবাদে আইনসভায় দেওয়া বক্তৃতায় এসব কথা বলেন ইমরান খান। এর আগে আজাদ কাশ্মীরের প্রধানমন্ত্রী রাজা ফারুক হায়দার তাঁর বক্তব্যে বলেন, ভারত জম্মু ও কাশ্মীরের পর পাকিস্তানে সমস্যা সৃষ্টি করবে।

ইমরান খান বলেন, ‘এটা আপনার প্রতি পাকিস্তানের বার্তা, আপনি ইট ছুড়লে তার জবাব পাথর ছুড়ে দেওয়া হবে। সেনাবাহিনী প্রস্তুত আছে, শুধু সেনাবাহিনী নয়, গোটা জাতি সেনাদের সঙ্গে লড়াইয়ে অংশ নেবে। আমরা প্রস্তুত থাকব, আপনি যা-ই করুন, আমরা শেষ দেখে ছাড়ব। আক্রমণাত্মক যুদ্ধ ইসলামবিরোধী, তবে স্বাধীনতার জন্য মুসলমানরা যতবার লড়াই করেছে, বড় বড় সেনাবাহিনীকে পরাজিত করেছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে, ভারত পুলওয়ামা পরবর্তী বালাকোট আক্রমণের চেয়ে ভয়াবহ পরিকল্পনা নিয়ে আগাচ্ছে।’

ইমরান খান বলেন, এই মূহুর্তে আরএসএস নামে ভয়ঙ্কর একটি মতবাদ আমাদের সামনে রয়েছে, যারা হিটলারের নাৎসি বাহিনীর আদর্শে অনুপ্রাণিত। আমিই প্রথম বিশ্ববাসীর সামনে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর আসল চেহারা তুলে ধরেছি।

তিনি বলেন, “আরএসএস সদস্যরা মনে করে-‘মুসলমানরা তাদের ওপর কয়েকশ বছর শাসন করেছে। তাই এখন মুসলমানদের থেকে প্রতিশোধ নিতে হবে। কারণ তারা যদি আমাদের (হিন্দুদের) ওপর শাসন না করতো, তাহলে আমরা একটি শক্তিশালী গোষ্ঠীতে পরিণত হতাম’- এটিই আরএসএসের মতাদর্শ।”

ইমরান খান বলেন, হিন্দু জাতীয়বাদী রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) আদর্শ। নাৎসিদের মতো করে ভারত থেকে মুসলিমদেরকে নিধনের কথা বলে এই আদর্শ। মোদি শিশুকাল থেকে এই আরএসএসের সদস্য।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কাশ্মীরে কারফিউ তুলে নেওয়ার পর সেখানে কী পরিমাণ বিভৎসতা দেখতে হবে তা ভাবতেও ভয় হচ্ছে।’

কাশ্মীরি জনগণকে আশ্বস্ত করে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখন থেকে আমি স্বাধীন কাশ্মীরের দূত হিসেবে কাজ করব।

এর আগে বুধবার স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে দেয়া এক বিবৃতিতে পাকিস্তান কাশ্মীরি ভাইদের পাশে থাকবে বলে নিশ্চিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

সাবেক এ কিংবদন্তি ক্রিকেট তারকা বলেন, স্বাধীনতা দিবস মানুষের জন্য আনন্দের সুযোগ এনে দেয়। কিন্তু অধিকৃত কাশ্মীরে ভারতীয় দমনপীড়নের শিকার ভাইদের দুর্দশায় আমরা দুঃখ ভারাক্রান্ত।

পিএনএস/ হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech