চলতি বছরে ভারতে কর্মহীন হবে ১৬ লাখ মানুষ!

  


পিএনএস ডেস্ক: ভারতের আর্থিক বৃদ্ধির হার কমছে। নরেন্দ্র মোদি দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই এই ধারা অব্যাহত রয়েছে। এ বিষয়টি নিয়ে বারবার বিরোধীদের আক্রমণের শিকার হয়েছেন ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে দেশের আর্থিক হাল শোধরানোর নানা চেষ্টা হলেও অবস্থার কোনও পরিবর্তন হয়নি। এই পরিস্থিতির মধ্যে ফের খারাপ খবর পাওয়া গেল স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার সদ্য প্রকাশিত একটি রিপোর্টে। ওই রিপোর্ট অনুযায়ী এই বছরে কাজ হারাতে পারেন প্রায় ১৬ লাখ মানুষ। ওই রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে, আসাম ও রাজস্থানের হাল সবচেয়ে খারাপ হবে।

সদ্য প্রকাশিত ওই রিপোর্ট (ইউপিএফও-এর রিপোর্ট) এর তথ্য অনুযায়ী ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে ভারতে ৮৯.৭ লাখ নতুন চাকরি হয়েছিল। যারা পে-রোলে ছিল। কিন্তু, ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে তা কমপক্ষে ১৫.৮ লাখ কমে যাবে। ফলে কাজ হারাতে পারেন প্রায় ১৬ লাখ মানুষ। এর ফলে দেশের বেশ কয়েকটি রাজ্যের মধ্যে আসাম ও রাজস্থানের হাল সবচেয়ে খারাপ হতে চলেছে বলেই জানা গেছে।

ভারতে গত বছরের এপ্রিল থেকে অক্টোবর, এই ৬ মাসের মধ্যে ৪৩ দশমিক ১ লক্ষ নতুন চাকরি তৈরি হয়েছে। পরিস্থিতি যা তাতে এ বছরের মার্চ মাস পর্যন্ত মোট ৭৩ দশমিক ৯ লক্ষ নতুন চাকরি তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। যা গত অর্থবর্ষের থেকে প্রায় ১৬ লক্ষ কম।

প্রসঙ্গত, ইউপিএফও মূলত স্বল্প বেতনের চাকরিগুলির তথ্য সংগ্রহ করে যেগুলিতে প্রতি মাসে ১৫,০০০ টাকা করে বেতন দেওয়া হয়। এর বাইরে থাকা কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারি এবং বেসরকারি চাকরি সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করা হয় ন্যাশনাল পেনশন স্কিম (এনপিএস)-র আওতায়। তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গতবারের তুলনায় এই অর্থবর্ষে ৩৯ হাজার চাকরি কম হবে।

পিএনএস/মো. শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন