সাতক্ষীরায় কলেজছাত্র গৌতম হত্যায় ৪ জনের ফাঁসি

  


পিএনএস ডেস্ক: সাতক্ষীরার চাঞ্চল্যকর কলেজছাত্র গৌতম সরকারকে হত্যার দায়ে চার আসামিকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।
আজ বুধবার সাতক্ষীরার জেলা ও দায়রা জজ সাদিকুল ইসলাম তালুকদার এক জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। বিচারক মামলায় অপর ছয় আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন।

মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামিরা হচ্ছেন— সাতক্ষীরা সদর উপজেলার মহাদেব নগরের সাজু আহমেদ শেখ, ভাড়খালি গ্রামের নাজমুল হোসেন, একই গ্রামের শাহাদাত হোসেন ও বহেরা গ্রামের আলী আহমেদ শাওন। মামলা চলাকালে জামিনে মুক্তিপ্রাপ্ত আসামি শাওন ও সাজু শেখ পলাতক। বাকি দুজন রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (পিপি) ওসমান গণি ও অতিরিক্ত পিপি তপন কুমার দাস গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।
আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন আশরাফুল আলম, মিজানুর রহমান পিন্টু ও মো: আক্তারুজ্জামান।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ২০১৬ সালের ১৩ ডিসেম্বর রাতে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঘোনা ইউনিয়নের মহাদেবনগর গ্রামের ইউপি সদস্য গণেশ সরকারের ছেলে সীমান্ত ডিগ্রি কলেজের স্নাতক (সম্মান) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র গৌতম সরকারকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে যায় আসামিরা। পরে তার পরিবারের কাছে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ চাওয়া হয়।

মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে গৌতমের মুখে গুলের তামাক ঢুকিয়ে মুখে টেপ এঁটে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। পরে হাতে-পায়ে ইট বেঁধে গৌতমের লাশ ফেলে দেয়া হয় স্থানীয় মোকলেছুর রহমানের পুকুরে।

এ ঘটনার পর আটক আলী আহমেদ শাওন ও শাহাদাত হোসেনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ১৭ ডিসেম্বর গৌতমের গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে নিহতের বাবা গণেশ সরকার ১০ আসামির নাম উল্লেখ করে সাতক্ষীরা সদর থানায় মামলা করেন।

জেলা গেয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক আশরাফুল ইসলাম সব আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেন। আদালত মামলায় ১৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech