জামায়াতের বিস্ময়

  

পিএনএস ডেস্ক: আজ প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ কে এম নূরুল হুদা নির্বাচনী রোডম্যাপ ঘোষণা উপলক্ষ্যে সাংবাদিক সম্মেলনে ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতাসীন থাকা অবস্থায় অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠান করা সম্ভব। ইভিএম ব্যবহারের দরজা এখনো বন্ধ হয়ে যায়নি’ বলে যে বক্তব্য প্রদান করেছেন তাতে গভীর বিস্ময় প্রকাশ করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী।

রোববার (১৬ জুলাই) জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলেন, “প্রধান নির্বাচন কমিশনারের এ বক্তব্য সম্পূর্ণ অসত্য, অনভিপ্রেত, অযৌক্তিক ও অবাস্তব। তার এ বক্তব্যে আমরা গভীরভাবে বিস্মিত হয়েছি।

গোটা জাতি আজ এ ব্যাপারে একমত যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আদৌ সম্ভব নয়। তার সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন হলে তাতে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনেরই পুনরাবৃত্তি ঘটবে। এ ধরনের প্রহসনের নির্বাচন অনুষ্ঠানের যে কোন উদ্যোগ জাতি ঘৃণার সাথে প্রত্যাখ্যান করবে।

বর্তমান নির্বাচন কমিশন বিদায়ী নির্বাচন কমিশনের পথেই হাটুক তা জাতি দেখতে চায় না। আমরা বিশ্বাস করি শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে কোনভাবেই অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে না। ইভিএম নির্বাচন ব্যবস্থা পৃথিবীর কোন দেশেই গ্রহণযোগ্য হয়নি। এ ব্যবস্থা সব দেশেই প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। জাতি আশা করেছিল নির্বাচন কমিশনের রোডম্যাপ ঘোষণায় জাতি আশান্বিত হবে। কিন্তু তাদের রোডম্যাপ ঘোষণা জাতিকে হতাশ করেছে।

দেশবাসী নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সকল দলের অংশগ্রহণে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন দেখতে চায়। এ ব্যাপারে জাতি কোন আপোস করবে না। প্রহসনের নির্বাচনের যে কোন অপপ্রয়াস জাতির কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না। জাতি তাদের ভোটাধিকার ফিরে পেতে চায়।”বিজ্ঞপ্তি।

মাদারীপুরে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান ‘যুবক-যুবতীদের ভুল বুঝিয়ে বিভ্রান্ত করে আইএস বানাচ্ছে জামায়াত’ মর্মে যে বক্তব্য দিয়েছে তার প্রতিবাদ জানিয়েছে জামায়াতে ইসলামী। নিম্নে হুবহু তুলে ধরা হলো-

রোববার মাদারীপুরের এক অনুষ্ঠানে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান ‘যুবক-যুবতীদের ভুল বুঝিয়ে বিভ্রান্ত করে আইএস বানাচ্ছে জামায়াত’ মর্মে যে ভিত্তিহীন অসত্য বক্তব্য প্রদান করেছেন তার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারী জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান আজ ১৬ জুলাই প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান ‘যুবক-যুবতীদের ভুল বুঝিয়ে বিভ্রান্ত করে আইএস বানাচ্ছে জামায়াত’ মর্মে যে কাল্পনিক বক্তব্য প্রদান করেছেন তার নিন্দা জানানোর ভাষা আমাদের জানা নেই।

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী একটি নিয়মতান্ত্রিক গণতান্ত্রিক ধারার রাজনীতিতে বিশ্বাসী দল। জামায়াত কখনো কোন সন্ত্রাসী কার্যক্রমে বিশ্বাস করে না। বরং দেশের সকল সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে জামায়াত সব সময়ই সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে। সুতরাং আইএস এর সাথে জামায়াতের সম্পর্ক থাকার প্রশ্নই আসে না। জনাব শাজাহান খান ইতোপূর্বেও এ ধরনের বহু আজগুবি বক্তব্য প্রদান করেছেন। জামায়াতকে জড়িয়ে অবাঞ্ছিত বক্তব্য প্রদান করা যেন তার মুদ্রাদেষে পরিণত হয়েছে। শাজাহান খানের ঔদ্ধত্যপূর্ণ কর্মকাণ্ডের কারণে নিজ দলের নেতা-কর্মীগণই তাকে দানব আখ্যা দিতে বাধ্য হচ্ছেন।

আমি শাজাহান খানকে ভবিষ্যতে এ ধরনের বিভ্রান্ত্রিকর বক্তব্য প্রদান করা থেকে বিরত থাকার জন্য আহবান জানাচ্ছি।”বিজ্ঞপ্তি।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech